মুম্বই: চাঞ্চল্যকর তথ্য! মহারাষ্ট্রের বিধান ভবনে বুধবার সকাল থেকেই হইচই৷ বিধান ভবনে ক্যান্টিনে নিরামিষ থালায় মিলল মুরগীর মাংসের টুকরো৷ তারপরেই বিতর্ক ছড়িয়ে পড়ে৷ বৃহস্পতিবার গোটা ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়ণবিশ৷ খাদ্য নিরাপত্তা সংক্রান্ত সব নিয়মাবলী মানা হচ্ছে কীনা তা খতিয়ে দেখা হবে বলে জানানো হয়েছে৷

রাজ্য বিধানসভায় এই প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখেন এনসিপি বিধায়ক অজিত পওয়ার৷ তিনি বলেন খোদ বিধানসভার ক্যান্টিনেই অরাজকতা চলছে৷ কীভাবে নিরামিষ ভোজীর থালায় মাংসের টুকরো চলে আসে, প্রশ্ন তোলেন তিনি৷ তারপরেই গোটা বিষয়ে কড়া হন মুখ্যমন্ত্রী ফড়ণবিশ৷ সঙ্গে সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর তরফ থেকে নির্দেশ পাঠানো হয় ফড়ণবিশের পক্ষ থেকে৷

মুখ্যমন্ত্রী জানান, ক্যান্টিনে এই ধরণের আচরণ কোনওভাবেই বরদাস্ত করা হবে না৷ প্রত্যেক ক্যান্টিন কর্মীকে পরিচ্ছন্ন ভাবে খাবার পরিবেশন করতে হবে৷ কোনও ধরণের বিশৃঙ্খলা মানবে না সরকার৷ এই ধরণের ঘটনা ভবিষ্যতে ঘটলে অভিযুক্তকে বরখাস্ত করারও কথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

আরও পড়ুন : পরিচ্ছন্ন বিধানসভা, অরুণাচলে কোটিপতি মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে নেই ফৌজদারি মামলা

বুধবার এক সরকারি আধিকারিক খেতে যান ওই ক্যান্টিনে৷ তাঁরই নিরামিষ থালায় মেলে মাংসের একাধিক টুকরো৷ যদিও তিনি মহারাষ্ট্রীয় খাবার মাটকি উসালের অর্ডার দিয়েছিলেন৷ সেখানে মাংসের টুকরো থাকার কথা নয়, কারণ এটি সম্পূর্ণ নিরামিষ খাবার৷ কিন্তু তারপরেও কীভাবে এই নিরামিষ খাবারে মাংসের একাধিক টুকরো চলে এল, তা নিয়ে বড়সড় প্রশ্ন উঠছে৷

এরই মধ্যে নয়া অভিযোগ তোলেন কংগ্রেস বিধায়ক বিজয় ওয়াদেতিওয়ার৷ তাঁর অভিযোগ দিন কয়েক আগেই নাগপুরের সরকারি মেডিক্যাল কলেজে ভরতি থাকা এক রোগির থালায় গোবর মেলে৷ তখন এই প্রসঙ্গে উদ্বেগ প্রকাশ করে ফড়ণবিশ বলেন, তদন্ত করে দেখা হবে৷ অভিযুক্ত অবশ্যই শাস্তি পাবে৷