স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: আগামী ২০ ও ২৮ অগস্ট লকডাউন প্রত্যাহার করে নেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিল ছাত্র পরিষদ। ২০ তারিখ প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গাঁধীর জন্মদিন। ওই দিন ‘সদ্ভাবনা দিবস’ হিসেবে পালন করেন কংগ্রেস কর্মীরা। আর ২৮ তারিখ ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবস, যা রাজ্য জুড়ে পালিত হয়। তাই ওই দু’দিন লকডাউন না রাখার আর্জি জানানো হয়েছে।

ছাত্র পরিষদের কলকাতা জেলা সভাপতি অর্ঘ গণ বলেন, “রাজীব গান্ধীর জন্য আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যুব কংগ্রেসের সভানেত্রী থেকে মুখ্যমন্ত্রী হতে পেরেছেন। আর এই লকডাউনের কোনও বৈজ্ঞানিক ভিত্তিও নেই। তাই ২০ তারিখ প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গাঁধীর জন্মদিনে লকডাউন প্রত্যাহারের আবেদন করছি। তা না হলে আমরা লকডাউন মানব না।” ছাত্র পরিষদের রাজ্য সভাপতি সৌরভ প্রসাদ ২০ ও ২৮ অগস্ট লকডাউন প্রত্যাহার করে নেওয়ার আবেদন জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিয়েছেন।

এদিকে, তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবস ২৮ আগস্ট। ফলে ভার্চুয়াল সভা করা যায় কি না, সে নিয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা।

প্রতিবছর ২৮ আগস্ট ধর্মতলার মেয়ো রোডে সভা হয়। করোনা পরিস্থিতির জেরে এবার ওই সভা করা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছে নেতৃত্ব। তৃণমূলের ছাত্র নেতা বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায় বলেন, করোনার মোকাবিলা আগে। তারপর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সভা সমাবেশ করার জন্য অনেক সময় পাওয়া যাবে। তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্য বলেন, দলের নির্দেশ মতো ২৮ তারিখ কর্মসূচি পালন করা হবে। আশা করছি, নেত্রী সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমাদের আগামী পথ চলার দিশা দেবেন।

একইভাবে সোশ্যাল মিডিয়ার প্ল্যাটফর্মকে হাতিয়ার করছে তৃণমূল মহিলা কংগ্রেস। ‘স্বাধীনতার মাস স্বাধীন আকাশ’ নামে একটি কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। ৯ আগস্ট ভার্চুয়াল আলোচনাসভা হবে বলে জানান মহিলা শাখার নেত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। রাজ্যের প্রতিটি জেলায় তৃণমূল মহিলা কংগ্রেসের কর্মীরা যাতে তা শুনতে পারেন সেই ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা