চেন্নাই: আইপিএলের দ্বাদশ ম্যাচে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংসকে তাদের ঘরের মাঠে নাগালের মধ্যে আটকে রাখল উদ্বোধনী আইপিএল চ্যাম্পিয়ন রাজস্থান রয়্যালস৷ চিপকে সিএসকে’র বিরুদ্ধে রাজস্থানের রেকর্ড আহামরি কিছু নয়৷ এবার ছবিটা বদলে দেওয়ার সম্ভাবনা তৈরি করল অজিঙ্কা রাহানের নেতৃত্বাধীন রাজস্থান দল৷ যদিও অধিনায়কোচিত ইনিংসে একসময় পর পর উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা চেন্নাইকে রড়াইয়ের রসদ এনে দেন মহেন্দ্র সিং ধোনি৷

চেন্নাইয়ের শিশিরের কথা ভেবে রাজস্থান অধিনায়ক টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানান মহেন্দ্র সিং ধোনিদের৷ পাওয়ার প্লে’র মধ্যেই চেন্নাইয়ের টপ অর্ডারের তিন জন ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে শুরু থেকেই ম্যাচের রাশ নিজেদের হাতে নিয়ে নেন রাহানেরা৷ শেষমেশ রায়না, ধোনি ও ডোয়েন ব্র্যাভোর মিলিত প্রচেষ্টায় চেন্নাই ব্যাটিং বিপর্যয় থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটের বিনিময়ে ১৭৫ রান তুলতে সক্ষম হয়৷

আরও পড়ুন: স্টাম্প মাইকে পন্তের মন্তব্য উসকে দিল ফিক্সিং বিতর্ক

ধোনি এক্ষেত্রে ভাগ্যের সাহায্য পান৷ কেননা, ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারের মাথায় জোফ্রা আর্চারের বলে প্লেড-অন হয়ে সাজঘরে ফেরার কথা ছিল মাহির৷ ব্যাটে লাগার পর গড়ানে বল স্ট্যাম্পে গিয়ে লাগলেও বেল পড়েনি৷ ফলে সে যাত্রায় বেঁচে যান ধোনি৷ পরে তাঁর ব্যাট থেকেই আসে ঝকঝকে হাফসেঞ্চুরি৷

দুই চেন্নাই ওপেনার আম্বাতি রায়ডু ও শেন ওয়াটসন দলগত ১৪ রানের মধ্যে সাজঘরে ফেরেন৷ রায়ডুকে ১ রানে ফিরিয়ে দেন আর্চার৷ ওয়াটসন ১৩ রান করে স্টোকসের শিকার হন৷ কেদার যাদব ৮ রানের বেশি সংগ্রহ করতে পারেননি৷ তাঁকে আউট করেন ধবল কুলকার্নি৷

আরও পড়ুন: রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্সকে দুরমুশ করে বিরাট জয় সানরাইজার্সের

সুরেশ রায়নাকে সঙ্গে নিয়ে ৬১ রানের পার্টনারশিপ গড়েন ধোনি৷ রায়না ৩২ বলে ৩৬ রান করে উনাদকাটের বলে বোল্ড হন৷ ডোয়েন ব্র্যাভোকে সঙ্গে নিয়ে আরও ৫৬ রান যোগ করেন ধোনি৷ ব্র্যাভো ১৬ বলে ২৭ রান করে আর্চারের দ্বিতীয় শিকার হন৷

ধোনি চারটি চার ও চারটি ছক্কার সাহায্যে ৪৬ বলে ৭৫ রান করে অপরাজিত থাকেন৷ ৩ বলে ৮ রান করে নটআউট থাকেন জাদেজা৷ চেন্নাই শেষ ১৮ বলে ৬০ রান তুলে লড়াইয়ে ফেরে৷