চেন্নাই: বর্তমানের এই টেক যুগে ক্রমেই আমরা দ্রুত থেকে দ্রুততর হয়ে উঠছি। ছুটে চলার রাস্তাতে চোখে পরলেও গুরুত্ব দেওয়া হয়ে ওঠে না অনেক কিছুতেই। তবে বর্তমানে এই ব্যস্ততার দুনিয়াতে সব থেকে বেশি সমস্যা টিন এজারদের নিয়ে। সামান্য থেকে সামান্যতম ঘটনাতে এমনভাবে প্রতিক্রিয়া দিয়ে থাকে বা এমন কাণ্ড ঘটিয়ে থাকে যার জেরে অবাক হয়ে যায় বড়রা। এই রকম এক ঘটনা ঘটেছে চেন্নাইয়ের কুন্দ্রাথুড় এলাকাতে৷

জানা গিয়েছে মায়ের সঙ্গে চুল কাটা নিয়ে বচসা হওয়াতে আত্মহত্যা করেছে এক নাবালক৷ ওই নাবালকের মায়ের নাম মোহনা৷ তিনি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেন৷ আর ছেলেটি কুন্দ্রাথুড় এলাকাতে পড়াশোনা করত বলে জানা গিয়েছে।

পোঙ্গলের ছুটি উপলক্ষে বাড়িতে ফিরে মায়ের সঙ্গে চুল কাটা নিয়ে তীব্র বাদানুবাদ হয়েছিল তার। কেননা মোহনা চাননি তার ছেলের লম্বা চুল থাকুক। অন্যদিকে তার ছেলে লম্বা চুল রাখতে চেয়েছিলেন। আর তার জেরেই দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে।

রবিবার কাজ থেকে থেকে ফিরে মোহনা অবাক হয়ে দেখেছিলেন তার ছেলের নিথর দেহ সিলিং থেকে ঝুলছে।

পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে সরকারি হসপিটালে দেহ নিয়ে যাওয়া হয়েছে অটোপ্সির জন্য৷ প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে রবিবার সকালে জোর করে ওই ছেলেটিকে নিয়ে গিয়ে সেলুনে নিয়ে গিয়ে জোর করে চুল কাটিয়েছিল তার মা৷ যা তাকে আত্মহত্যা করতে ঠেলে দিয়েছিল৷