কলকাতা:  করোনা আক্রান্ত ছত্রধর মাহাতো। আজ আদালতে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল ছত্রধরের। কিন্তু আইনজীবী মারফৎ ছত্রধর জানিয়েছেন যে তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ছত্রধরের সমস্ত মেডিক্যাল রিপোর্টও আদালতে জমা দিয়েছেন আইনজীবী। সেই কারণে আগামী কয়েকদিন আইসোলেশনে ছত্রধরকে থাকতে বলে আদালতকে জানিয়েছেন তাঁর আইনজীবী।

১১ বছর আগেকার দুই সিপিআই(এম) কর্মী খুনের ঘটনায় পুরানো মামলারই নতুন করে শুনানি শুরু হয়েছে কলকাতার নগরদায়রা এনআইএ আদালতে। সেই মামলাতেই ইউএপিএ ধারা যুক্ত করে এবার ছত্রধর মাহাতো সহ আরও ৫ জনকে নিজেদের হেফাজতে নিতে চায় এনআইএ।

প্রসঙ্গত, এগারো বছর আগে জঙ্গলমহলে খুন হয়েছিলেন সিপিএম কর্মী প্রবীর মাহাতো। সেই পুরনো মামলা খুঁড়ে নতুন ভাবে মামলা দায়ের করেছে এনআইএ।

এনআইএ সূত্রের খবর, ওই মামলায় ছত্রধর-সহ মোট ৩০ জনকে এ দিন হাজির হতে বলেছিলেন বিচারক। বাকি অভিযুক্তেরা অবশ্য হাজিরা দিয়েছেন। গত শুনানিতে ছত্রধর-সহ পাঁচ জন অভিযুক্তকে নিজেদের হেফাজতে নিতে চেয়ে আদালতে আবেদনও জানিয়েছেন এনআইএ-র তদন্তকারীরা। কিন্তু আদালতের মধ্যেই অসুস্থ হয়ে পড়েন ছত্রধর। যদিও আদালতে ঢোকার আগেই জ্বর এবং শ্বাসকষ্টের বিষয়টি সামনে আনেন ছত্রধর। আইনজীবী মারফত সেই বিষয়টি আদালতকেও জানান ছত্রধর।

অন্যদিকে সিপিএম কর্মী প্রবীর মাহাতোর খুনের ঘটনায় ছত্রধর-সহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে এনআইএ-র আইনজীবী শ্যামল ঘোষ জানিয়েছিলেন, ওই মামলায় ইউএপিএ (আনলফুল অ্যাকটিভিটিস প্রিভেনশন অ্যাক্ট) ধারা যুক্ত করার আবেদন করা হয়েছে। সব শুনানি সোমবার হবে।

যদিও গত শুনানিতে ছত্রধরের আইনজীবী জানিয়ে ছিলেন, “এনআইএ-র নতুন আবেদন আমরা জানতাম না। সেটাই আদালতকে জানিয়েছি।” আজ সোমবার মামলার শুনানি ছিল।

এদিন তাঁর আইনজীবি আদালতে জানান যে তাঁর মক্কেল করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। সেই মর্মে তিনি ছত্রধর মাহাতোর আরটি পিসিআর রিপোর্টও জমা দেন। স্বভাবিক ভাবেই এখনই আর ছত্রধর মাহাতোকে নিজেদের হেফাজতে নিতে সক্ষম হল না এনআইএ। তবে সপ্তাহ দুই পরে আবারও তাঁকে আদালতে হাজিরা দিতে হতে পারে বলেই জানা গিয়েছে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।