স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: জয় শ্রী রাম বলায় শুরু হয় বোমাবাজি৷ ঘটনায় চার ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়৷ ঘটনাটি ঘটেছে বহরমপুর থানার গোয়ালজান বিফুউজি ফেরিঘাট এলাকায়৷ ঘটনায় অভিযোগের তীর বিজেপির বিরুদ্ধে৷ যদিও বা অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি নেতৃত্ব৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বহরমপুর থানার গোয়ালজান বিফুউজি ফেরিঘাট এলাকার দুই যুবক রানা সরকার ও জয় হালদার ঘোষ পাড়ায় বিয়ের নিমন্ত্রণে গিয়েছিলেন৷ সেখানে গিয়ে এই দুই যুবক জয় শ্রী রাম বলে৷ এরপরই উপস্থিত পাশের এলাকার বাসিন্দা তৃণমূল কর্মী নিত্য মণ্ডল ও জয়ন্ত দে সহ বেশ কয়েকজন ওই দুই যুবককে তুলে নিয়ে যায়৷ এবং মারধোর করে বলে অভিযোগ। কোনক্রমে বাড়ি ফিরে আসে রানা সরকার ও জয় হালদার। সারারাত কেটে গেলেও ঘটনার কথা বাড়িতে জানায়নি ওই দুই যুবক।

এরপর ঘটনার কথা জানাজানি হতেই উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। স্থানীয়রা বিফুউজি ফেরিঘাটে গিয়ে অভিযুক্তদের ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান। ঘটনার খবর পেয়ে এলাকায় পৌঁছায় বিশাল পুলিশ বাহিনী৷ তাঁরা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েন এলাকাবাসী৷

নিত্য মণ্ডল ও জয়ন্ত দে-র নেতৃত্বে কিছু দুষ্কৃতী রিফিউজি পাড়ায় গিয়ে হামলা চালায় বলে অভিযোগ। এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি এবং গুলি চালানো হয় বলে অভিযোগ। গুলি ও বোমার আঘাতে গুরুতর জখম হন চার জন। তাদের মধ্যে নয়ন বিশ্বাস, সম্রাট হালদার ও নবকুমার হালদারকে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভরতি করা হয়। ঘটনায় আহত হন এক বৃদ্ধাও। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় মোতায়েন করা হয়েছে র‍্যাফ।

যদিও স্থানীয়দের অভিযোগ, এলাকায় সন্ত্রাস চালিয়েছে স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। এদিন রাতে বোমাবাজির সময় পুলিশ বাহিনী এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। বোমাবাজির পর এলাকাবাসীর তারা খেয়ে স্থানীয় একটি ক্লাবে গিয়ে আশ্রয় নেয় দুষ্কৃতীরা৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় রিফিউজি পাড়ায় বাসিন্দারা। তারা ওই ক্লাবে ভাঙচুর চালায় বলেও অভিযোগ। সেই সময় ওই ক্লাব থেকেও গুলি চালানো হয় বলে অভিযোগ। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ঘটনার পর সারা রাত কেটে গেলেও এলাকায় রয়েছে চাপা উত্তেজনা। এখন পড়ে রয়েছে বোমার ও গুলির খোল। ঘটনার পর থেকেই বন্ধ রিফিউজি পাড়ায় ফেরিঘাট। যদিও যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে ঘটনায় মূল অভিযুক্ত জয়ন্ত দে। তার দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে তারা জড়িত নয়। এলাকায় বোমাবাজি করেছে রিফিউজি পাড়ার বাসিন্দারা। তাদেরকে প্রাণে মারতে ক্লাবে হামলা চালিয়েছেন রিফিউজি পাড়ায় তাঁরা। এই ঘটনায় এলাকাবাসীকে মদত দিচ্ছে বিজেপি নেতৃত্ব।