স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: এক বৃদ্ধার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল টিটাগড় রেল কোয়ার্টার এলাকায়। মৃত বৃদ্ধার নাম লতা বর (৭০)। গত শনিবার থেকে ওই বৃদ্ধা তাঁর মেয়ের বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে যান৷ এরপর বৃহস্পতিবার টিটাগড় রেল কোয়ার্টার এলাকায় পাশের একটি ঝুপড়ি থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় তাঁর দেহ উদ্ধার হয়৷ প্রতিবেশীরা ওই মৃতদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। টিটাগড় থানার পুলিশ এসে বৃদ্ধার দেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, লতা দেবী তাঁর মেয়ে সুমিত্রা মল্লিক ও জামাই রাজকুমার মল্লিকের সঙ্গে থাকতেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি অসুস্থ ছিলেন। কিন্তু শনিবার থেকে তাঁর কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। অবশেষে এক ব্যক্তি শনিবার টিটাগড় রেল কোয়ার্টারের পরিত্যক্ত বস্তি এলাকায় টালি আনতে গিয়ে বৃদ্ধার দেহ দেখতে পান। টিটাগড় থানার পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বারাকপুর মর্গে পাঠায়৷ মৃত লতা দেবীর বাড়ি দক্ষিণ ২৪ পরগণার ক্যানিং এলাকায়। তবে তিনি টিটাগড়ে তার মেয়ে সুমিত্রা মল্লিক ও জামাই রাজকুমার মল্লিকের সঙ্গে থাকতেন।

মৃতের মেয়ে সুমিত্রা মল্লিক বলেন, দীর্ঘদিন ধরে মা অসুস্থ থাকায় মানসিক অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন। বারবার বাড়ি থেকে অন্যত্র চলে যেত আমি খুঁজে নিয়ে আসতাম৷ শনিবার থেকে তার কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। আজকে ওনার দেহ উদ্ধার হল। কিভাবে ওনার মৃত্যু হল বুঝতেই পারছি না।

পুলিশ জানিয়েছে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে না আসা পর্যন্ত মৃত্যুর কারণ বলা যাবে না। এই ঘটনায় পুলিশ মৃতের মেয়ে সুমিত্রা মল্লিক ও জামাই রাজকুমার মল্লিককে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। তবে পুলিশ কাউকেই গ্রেফতার করেনি। এই ঘটনায় অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে টিটাগড় থানার পুলিশ।