প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: উত্তপ্ত হয়ে উঠল হাওড়ার গোলাবাড়ির পিলখানা এলাকা। টাকা নিয়ে গন্ডগোলের জেরে চলল কয়েক রাউন্ড গুলি এবং বোমা৷ এতে ২ জন আহত হয়৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন গোলাবাড়ি থানার পুলিশ৷

জানা গিয়েছে, পাওনা টাকা ফেরত চাওয়াকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রে হয়ে ওঠে হাওড়ার পিলখানা৷ দুষ্কৃতীদের ছোঁড়া গুলিতে গুরুতর জখম হয় এক কিশোর ও এক যুবক। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়৷ শুক্রবার রাতে ঘটনাটি ঘটে গোলাবাড়ি থানা এলাকার পিলখানা থার্ড বাই লেনে। এদিন ঘটনার সূত্রপাত রাত ১২টা নাগাদ। পেশায় কাঠমিস্ত্রি মহম্মদ আখতার পাওনা টাকা চাইতে যায় ফারুক আলম ওরফে রিঙ্কুর বাড়িতে। এই টাকা নিয়েই বচসা বাধে দুজনের মধ্যে। ধাক্কাধাক্কি থেকে তা পৌঁছয় মারামারিতে।

পড়ুন: ঘাসফুল থেকে পদ্মে মজে বামেদের মতো টাটাদের ফেরাতে চায় সিঙ্গুর

এর কিছুক্ষণ পর সেই এলাকা থেকে আখতার চলে গেলেও ভোর ৪টে দলবল নিয়ে ফের ফিরে আসে সে৷ বোমা, লাঠি, আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে এলাকায় তাণ্ডব চালায় আখতার। এই পরিস্থিতিতে এলাকা রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়। মুহুর্মুহু গুলি বোমা ছোঁড়া হয়। সঙ্গে ইট বৃষ্টি থেকে বোতলও ছোঁড়া হতে থাকে৷ এলাকায় আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি হয়৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে বিশাল পুলিশ বাহিনী। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আসে র‍্যাফও।

স্থানীয় বাসিন্দা আফজল খান জানান, ছোট ঝামেলা অশান্তির আকার ধারণ করে। তিনি আরও জানান, ভোর সাড়ে ৩টে নাগাদ তারা নমাজ পড়তে গিয়েছিলেন। ৪টে নাগাদ হঠাৎই শোনা যায় বোমার আওয়াজ। গুলি, বোমার পাশাপাশি এলাকায় দুষ্কৃতীরা ভাঙচুর চালায়৷ এই ঘটনা প্রসঙ্গে হাওড়া সিটি পুলিশের ডিসি নর্থ অমিত রাঠোর সংঘর্ষের কথা স্বীকার করেছেন। তিনি জানান, দোষীদের খোঁজা হচ্ছে। পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত করছে।