স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: সদ্যোজাত তিনটি হুঁড়োল বাঘের শাবক উদ্ধারের ঘটনা চাঞ্চল্য ছড়াল বাঁকুড়ার কোতুলপুরের দেশড়া-কোয়ালপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার পানাহার গ্রামে। এলাকায় এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই সকাল থেকে ওই শাবক তিনটি দেখতে অসংখ্য মানুষ ভিড় করছেন।

স্থানীয় সূত্রে খবর, পানাহার গ্রামের কমল সরেন প্রাতঃকৃত্য সারতে গিয়ে পুকুর পাড়ে ওই তিনটি সদ্যোজাত শাবক দেখতে পান। পরে তিনি তাদের বাড়িতে নিয়ে এসে রাখেন। এখনও ওই তিনটি শাবকের চোখ না ফোটায় ইনজেকশন সিরিঞ্জ তরল খাবার খাওয়ানোর চেষ্টা করেন অতি উৎসাহী গ্রামবাসীরা।

উদ্ধারকারী গ্রামবাসী কমল সরেন ওই শাবক তিনটি হুড়োল বাঘের দাবি করে বলেন, কুকুরে খেয়ে ফেলতে পারে। সেভেবেই বাড়িতে এনেছিলাম। এখন তিনি চাইছেন সদ্যোজাত শাবক তিনটি তাদের মায়ের কাছে ফিরে যাক। যদিও গ্রামবাসীদের দাবি মানতে নারাজ বনদফতরের জয়পুর বনাঞ্চলের রেঞ্জার শম্ভুনাথ চক্রবর্তী।

তিনি বলেন, খবর পেয়েই আমাদের কর্মীরা ওই গ্রামে গিয়েছিলেন। ওই সদ্যোজাত শাবক তিনটি আসলে বন বিড়াল, হুঁড়োল বা বাঘ নয়। ওই শাবক তিনটি এতোটাই ছোটো যে ওদের এখনও চোখ ফোটেনি। সম্ভবত গতকালই ওদের জন্ম হয়েছে। এই অবস্থায় গ্রামবাসীদের দায়িত্ব নিয়ে ওই পুকুর পাড়ে শাবক তিনটিকে রেখে আসতে অনুরোধ করা হয়েছে যাতে বাচ্চা গুলির মা তাদেরকে নিয়ে যেতে পারে বলে তিনি জানান।