স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে উত্তপ্ত হয়ে উঠছে বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্র৷ সোমবার সকাল থেকেই বিজেপি ও তৃণমূলের মধ্যে দফায় দফায় বচসা বাধে৷ বচসার মধ্যে পড়ে মার খেতে হয় অর্জুন সিংকেও। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে যখন দফায় দফায় উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বারাকপুর, অন্যদিকে তখন সিপিএম এজেন্টকে মারধরের অভিযোগ সিপিএম প্রার্থী গার্গী চট্টোপাধ্যায়ের।

বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের আমডাঙা বিধানসভার তাড়া বেরিয়া পঞ্চায়েতে এলাকার বটগাছিয়ায় সিপিএমের এজেন্টকে মারধরের অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। খবর পেয়ে সিপিএম প্রার্থী গার্গী চট্টোপাধ্যায় ঘটনাস্থলে পৌঁছয়৷ তার সামনেই ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ায়। সিপিএম আর তৃণমূল কর্মীদের মধ্যে বচসা শুরু হয়।

কোন রকম অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে তাই কেন্দ্রীয় বাহিনী তৎপর হয়ে ওঠে। দ্রুত জমায়েত সরিয়ে দেয়। নির্বাচন কমিশনে আধিকারিকরাও ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান৷ ওই এলাকায় সাধারণ ভোটারদের নির্ভয় ভোট দিতে যাওয়ার আবেদন করেন তাঁরা।

অন্যদিকে, বিজেপি এজেন্টদের বারাকপুর লোকসভার বিভিন্ন বুথে বসতে দেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ বিজেপি প্রার্থীর৷ নিশানায় তৃণমূল৷ মোহনপুরে বুথে এজেন্টকে বসতে না দেওয়ায় অর্জুন সিংয়ের সঙ্গে বচসা হয় রাজ্যের শাসক দলের কর্মীদের৷ মোহনপুরে দায়িত্ব নিয়ে ভোটারদের বুথে নিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি৷

এরপরই অর্জুন সিং-এর সঙ্গে বুথের বাইরে রাজ্য পুলিশের হাতাহাতি হয়৷ যার জেরে মুখ ফেটে যায় বারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিংয়ের৷ বারাকপুরের বিজেপি প্রার্থীর অভিযোগ, তৃণমূলের কর্মীদের মারেই তাঁর মুখ ফেটে গিয়েছে৷ ইতিমধ্যেই কমিশনে ঘটনার রিপোর্ট তলব করেছেন৷ তৃণমূল কর্মীরা কোনও গুণ্ডাগিরি করেনি৷ দাবি জোড়াফুল শিবিরের৷