নয়াদিল্লি: চন্দ্রযান ২ সফল না ব্যর্থ, তা নিয়ে প্রশ্ন থাকবেই। তবে এরই মধ্যে চন্দ্রযান ৩ নিয়েও রীতিমতো আলোচনা শুরু হয়ে গিয়েছে। বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং জানালেন, ২০২১ সালের প্রথমার্ধেই সম্ভবত উৎক্ষেপণ করা হবে চন্দ্রযান-৩।

লোকসভায় বুধবার জিতেন্দ্র সিং জানান, ভারতীয় মহাকাশ সংস্থা ইসরোর এই ‘ম্যানড মিশন’ গগনযানে চারটি বায়োলজিক্যাল ও দুটি শারীরিক বিজ্ঞান এক্সপেরিমেন্ট করা হবে। তিনি জানিয়েছেন, এই মিশন শুধু ভারত না, গোটা বিশ্বকে চমকে দিতে চলেছে। চন্দ্রযান-২ এর যাবতীয় স্বপ্নকে পূরণ করবে এই মিশন চন্দ্রযান-৩।

জিতেন্দ্র সিং জানিয়েছেন, চন্দ্রযান-২ এর ওপর ভিত্তি করেই চন্দ্রযান-৩ মিশনটি নতুন ভাবে কনফিগার করে তোলা হয়েছে। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, ২০২১ এর শুরুতেই এই চন্দ্রযান-৩ উৎক্ষেপণের সম্ভাব্য সময় হিসাবে নির্ধারণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, আগেই ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থার চেয়ারম্যান কে শিবন জানিয়েছিলেন, এই প্রজেক্টের বিষয়ে ভারত সরকার যাবতীয় অনুমোদন দিয়ে দিয়েছে। একইসঙ্গে জানানো হয়েছিল, চাঁদের যে অংশে বিক্রম ল্যান্ডার নামার চেষ্টা করেছিল, সেখানেই ল্যান্ড করানো হবে চন্দ্রযান-৩ কেও। এই মিশনের জন্য ২৫০কোটি টাকার বাজেট ধরা হয়েছে।

২০১৯ সালে জুলাই মাসে সফল উৎক্ষেপণ চন্দ্রযান-২ এর। ২২ জুলাই দুপুর ২টো ৪৩ মিনিটে চন্দ্রযান-২ পাড়ি দেয় চাঁদের উদ্দেশ্যে। যদিও প্রবল আশা জাগিয়েও ঠিক অন্তিম মুহূর্তে ল্যান্ডিং-এর সময় সমস্যার মুখে পড়ে চন্দ্রযান-২। ফলে সম্পূর্ণ রূপে সফল হয়নি চন্দ্রযান ২ মিশন। সেই না পাওয়া ঝেড়ে ফেলতেই এবার চন্দ্রজান-৩ কে পাখির চোখ করছেন বিজ্ঞানীরা।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।