নয়াদিল্লি: শুক্রবার রাতটা জেগেই কাটিয়েছে ১৩০ কোটির দেশ। সাফল্য না-এলেও স্বপ্নভঙ হয়নি৷ ইসরো চেয়ারম্যানের চোখে জল৷ তাঁকে স্বান্তনা দিতে দেখা গিয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। শুধু প্রধানমন্ত্রী নন, ইসরো’র পাশে দাঁড়িয়ে তাঁদের চেষ্টাকে কুর্নিশ জানাচ্ছে ক্রিকেটজগৎ৷

শুধু ভারতবাসীর নয়, সারা বিশ্বের নজর ছিল চন্দ্রযান-২ দিকে। কিন্তু বিক্রম ল্যান্ডার চাঁদে নামার ২.১ কিমি দূরে থাকা অবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় যোগাযোগ। হতে পারে পরিকল্পনা মত এগোয়নি ভারতের চন্দ্র অভিযান। তবে পুরোপুরি ব্যর্থ নয় চন্দ্রযান-২। ল্যান্ডারের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি ঠিকই। কিন্তু সঠিক অবস্থানেই রয়েছে অরবিটার। যেটি চাঁদকে প্রদক্ষিণ করবে ও ছবি পাঠাবে পৃথিবীতে।

এই মিশন ৯৫ শতাংশ সাফল্য পেয়েছে বলে দাবি করছেন ইসরোর এক আধিকারিক। পাঁচ শতাংশ ব্যর্থতাকে বড় করে দেখতে রাজি নন দেশের মানুষ। ইসরো’র সাফল্যকে কুর্নিশ জানিয়েছেন টিম ইন্ডিয়ার ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি থেকে প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার বীরেন্দ্র সেহওয়াগ৷ শনিবার টুইটারে চন্দ্রযান-২ নিয়ে বিরাট লেখেন, ‘There’s nothing like failure in science, we experiment & we gain. Massive respect for the scientists at #ISRO who worked relentlessly over days & nights. The nation is proud of you, Jai Hind!

টুইট করে প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার সেহওয়াগ লেখেন, ‘Khwaab Adhoora raha par Hauslein Zinda hain, ISRO woh hai, jahaan mushkilein Sharminda hain. Hum Honge Kaaamyab #Chandrayan2.’

টুইটারে নিজর মতামত জানিয়েছেন টিম ইন্ডিয়ায় বীরু’র ওপেনিং পার্টনার গৌতম গম্ভীরও৷ তিনি লেখেন মনে করিয়ে দিয়েছেন, ‘ব্যর্থতা না থাকলে শেখা যায় না। আমরা আবার ফিরে আসব। সমস্ত ভারতবাসীর স্বপ্নকে সত্যি করার দিকে পা বাড়ানোর জন্য ইসরোকে স্যালুট জানায়।’

ভারতকে একের পর এক গর্বের শিখরে পৌঁছে দিয়েছে ইসরো৷ শেষ মুহূর্তে ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়া ভারতবাসীর স্বপ্নভঙ হলেও বিশ্বের দরবারে ভারতের মান উঁচু করেছেন ইসরো’র বিজ্ঞানিরা। বিক্রম চাঁদের মাটি ছুঁল কিনা জানা সম্ভব হয়নি। তবে সম্পূর্ণ ব্যর্থ নয়, পরিকল্পনা৷ বিজ্ঞানীদের চোখে-মুখে নিরাশার ছবি দেখে এদিন সকালেই ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর সামনেই কার্যত ভেঙে পড়লেন ইসরোর চেয়ারম্যান কে সিবান।

সংবাদসংস্থাকে এক ইসরো আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘অভিযানের মাত্র ৫ শতাংশ ব্যর্থ হয়েছে। ল্যান্ডার বিক্রম আর রোভার প্রজ্ঞানের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হচ্ছে না। কিন্তু রয়ে গিয়েছে বাকি ৯৫ শতাংশ অর্থাৎ চন্দ্রযান-২ অরবিটার।’ আগামী এক বছর ধরে ওই অরবিটার চাঁদের বিভিন্ন ছবি তুলে পাঠাবে ইসরো-কে। এমনকি ল্যান্ডার বিক্রম কোথায় রয়েছে সেই ছবিও পাঠাতে পারে ওই অরবিটার।