বেঙ্গালুরু: প্রতীক্ষার কাউন্টডাউন শুরু ইসরোতে৷ আর কয়েকঘণ্টা পরেই উড়ান শুরু করবে গর্বের চন্দ্রায়ন ২৷ ইতিমধ্যেই ইসরোর পক্ষ থেকে সেই অভিযানের সফল মহড়াও সেরে ফেলা হয়েছে৷ এখন প্রতীক্ষা মাহেন্দ্রক্ষণের৷ আগামীকাল অর্থাৎ ২২শে জুলাই দুপুর ২টো বেজে ৪৩ মিনিটে চন্দ্রায়ন ২-এর অভিযানের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ইসরো৷

ইসরো আগে জানিয়েছিল চন্দ্রায়ন ২ উৎক্ষেপন করা হবে GSLV Mk II রকেট থেকে৷ এই স্পেসক্র্যাফ্টের ওজন ৩ হাজার ২৯০ কেজি৷ ১৪ দিন এই যান চাঁদে কাটাতে পারবে৷ চন্দ্রপৃষ্ঠে একাধিক পরীক্ষা চালাবে এই চন্দ্রযান৷ ৬ চাকার একটি রোভার চন্দ্রপৃষ্ঠে ঘুরে বেড়াবে৷ চন্দ্রপৃষ্ঠকে এটি পর্যবেক্ষন করবে ও ডেটা পাঠাবে পৃথিবীতে৷

তবে ১৫ই জুলাই উৎক্ষেপণের সময়ের কয়েক ঘন্টা আগে যান্ত্রিক ত্রুটির জন্য পিছিয়ে দেওয়া হয় চন্দ্রায়ন ২ যাত্রা৷ ইসরো জানায় ৫৬ মিনিট ২৪ সেকেন্ড আগে এই অভিযান বাতিল করা হয়। জানা গিয়েছে, শেষ মুহূর্তে প্রযুক্তিগত ত্রুটি পাওয়া যায় মহাকাশযানে। আর এরপরেই এই অভিযান স্থগিত করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা।

ইসরোর পক্ষ থেকে জানানো হয়, এবার অন্ধকার দিকটিতে চন্দ্রায়ন ২ নামবে৷ এই অংশটি চাঁদের দক্ষিণ মেরু থেকে ৩৭০ মাইল দূরে৷ বিজ্ঞানীরা বলছেন, চাঁদের এই অংশটিতে যে পাথর রয়েছে তা প্রায় ৪ বিলিয়ন বছরের পুরোনো৷ বিজ্ঞানীরা মনে করছেন, এখানেই ছিল এক বিশালকার সমুদ্র৷ সেই সমুদ্রের তরল পাথর জমাট বেঁধে চাঁদের মাটিতে এই পাথর জমেছে৷ ভারতের এই চন্দ্রাভিযান সফল হলে, তা দেশের গৌরবের মুকুটে আরও এক পালক নিয়ে আসবে৷

আরও পড়ুন : ‘রাহু কালামে’ ওড়ে না রকেট, বিজ্ঞানের প্রাণকেন্দ্র ISRO-তেও কুসংস্কারের ঘটা

মূলত জলের সন্ধানে এবার চন্দ্রাভিযান ভারতের৷ এই রোভারে থাকবে মোট ১১টি অংশ৷ ভারতের ছটি, তিনটি ইউরোপের, ২টি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের৷