নয়াদিল্লি: ২০১৯ সালে নির্বাচন মিটতেই বিরোধীদের একত্র করার উদ্দেশ্যে শনিবার টিডিপি প্রধান তথা অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এন চন্দ্রবাবু নাইডু কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গে দেখা করলেন৷ তাদের বৈঠকে নাইডু এবং গান্ধী আলোচনা করেন ২৩মে নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর বিজেপিকে ক্ষমতা থেকে সরাতে বিরোধী ফ্রন্ট গড়ার ব্যাপারে৷ পাশাপাশ তিনি ওইদিন দেখা করেছেন সিপিআই নেতা সুধাকর রেড্ডি এবং ডি রাজার সঙ্গে

চন্দ্রবাবু নাইডু- রাহুল গান্ধীর ঘন্টা খানেকের বৈঠক যেমন বিজেপি বিরোধী দলগুলিকে ঐক্যবদ্ধ করার কথা বলা হয়েছে তেমনই আবার সংখ্যা গরিষ্ঠতা কম থাকা বিজেপি যাতে সরকারের গড়ার জন্য অন্য দলগুলিকে ভাঙাতে না পারে তার জন্য কৌশলগত দিক থেকে তৈরি থাকার কথাও বলা হয়৷ ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধী দিল্লিতে সমস্ত বিরোধী দলের নেতা নেত্রীদের ২৩মে নির্বাচনের ফল প্রকাশের পরে বৈঠকের জন্য ডেকেছেন , তার ঠিক পরের দিনই চন্দ্রবাবু নাইডু- রাহুল গান্ধীর বৈঠক এক নতুন মাত্রা দিল৷

নাইডু জানিয়েছেন, এনসিপি সু্প্রিমো শরদ পওয়ার এদিনই পরে এলজেডি নেতা শরদ যাদবের সঙ্গে দেখা করবেন৷ তিনি বিএসপি প্রধান মায়াবতীর এবং এসপি সভাপতি অখিলেশ যাদবের সঙ্গে শনিবার সন্ধেবেলাই লখনউতে দেখা করবেন৷ তাছাড়া চন্দ্রবাবু নাইডু তৃণমূল নেত্রী তথা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ রাখছেন৷

নাইডু জানিয়েছেন, বিরোধী সব দবলের জন্যেই দরজা খোলা রয়েছে এমন কী টিআরএসএর সঙ্গেও৷ যদিও টিআরএস প্রধান তথা তেলেঙ্গনার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও বিজেপি বিরোধী কংগ্রেসে বিরোধী তৃতীয় ফ্রন্ট গড়ার কথা বলেছেন৷ ইয়েদুরি এবং কেজরিওয়ালের সঙ্গে ২৩মে পর জোট গড়া সম্ভাবনার কথা আলোচনা করেছেন৷