প্যারিস: চাঁদে বিয়ার পাঠানোর ব্যবস্থা হয়েছে আগেই। এবার মহাকাশে বসে আরও বিলাসবহুল সময় কাটাতে পারবেন মহাকাশচারীরা। হাতে থাকবে শ্যাম্পেনের বোতল। খুললেই উড়বে মদ। সেই ব্যবস্থাই করছে নতুন প্রযুক্তি।

ইতিমধ্যেই হাই-টেক ওই বোতল বানাতে শুরু করেছে কিছু ডিজাইনার। ‘মাম শ্যাম্পেন হাউস’ এই বোতল তৈরির প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে। মহাকাশে অনায়াসে নিয়ে যাওয়া যাবে ওই বোত। তার জন্য কোনও ক্ষতি হবে না। শুরু হয়েছে তার পরীক্ষা-নিরিক্ষাও।

এয়ারবাসের জিরো গ্র্যাভিটি প্লেনে বসে হয়ে গেল সেই পরীক্ষা। যার ভিতর কোনও মাধ্যাকর্ষণ কাজ করে না। সেখানেই বসেই শ্যাম্পেনের বোতল খুলে পরীক্ষা করা হল। তবে, এই বোতল কিন্তু মহাকাশচারীদের জন্য তৈরি হচ্ছে না। তাঁদের কখনই মহাকাশে মদ খেতে দেওয়া হয় না। ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশনে বসে মদ খাওয়ার কোনও নিয়ম নেই।

আসলে এসবই হচ্ছে স্পেস-ট্যুরিস্টদের কথা মাথায় রেখে। অদুর ভবিষ্যতে নিছক পর্যটনের জন্য মহাকাশে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছে একাধিক সংস্থা। তাদের বিনোদনের জন্যই এই ব্যবস্থা হচ্ছে। যেহেতু এদের ক্ষেত্রে মহাকাশে আর কোনও কাজ থাকবে না, তাই তারা একটু-আধটু মদ খেতেই পারবেন।

মাধ্যাকর্ষণের বাইরে গিয়ে বোতন থেকে শ্যাম্পেন বের করাটাই আসল চ্যালেঞ্জ। আর সেটাই গ্রহণ করেছিল ওই সংস্থা। তারা আসলে বোতলটি দুটি ভাগে ভাগ করেছে। উপরের অংশে থাকবে শ্যাম্পেন। আর নিচের অংশে থাকবে একটি ভালভ। সেখানে শ্যাম্পেনের কার্বন-ডাই-অক্সাইড তৈরি হবে কিছুটা ওয়াইন। ওয়াইনটা যাতে চারপাশে ছড়িয়ে না যায় তার জন্যও বিশেষ প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। বোতল থেকে শ্যাম্পেন বেরলেই কায়দা করে তাকে বন্দি করে ফেলতে হয়ে গ্লাসে। তারপরই চুমুক।