কলকাতা: এক বড় আবাসনের ফ্ল্যাটে বাস করেন এক কবি৷ চতুর্দিকে যা ঘটে চলেছে সেই সব নিয়ে কবিতা লেখা তাঁর শখ৷ সেই একলা কবির ফ্ল্যাটের পাশে ফ্ল্যাট নেয় শিউলি৷ নতুন বিয়ে হয়ে বরের হাত ধরে এসেছে নতুন জায়গায়৷ কিন্তু রান্না না জানায় সমস্যায় পড়তে হচ্ছে তাকে৷ ঠিক এই জায়গা থেকেই গল্পের শুরু৷ তবে শুধু গল্প বললে হবেনা৷ সঙ্গে থাকছে নিত্যদিনের সমস্যা ও ভাইরাল খবর নিয়ে আলোচনা পর্যালোচনা৷ এসবের পাশাপাশি থাকছে খুনসুটি আর হরেক রকম রান্না৷ জিভে জল আনা সেইসব রান্না শেখাবেন খরাজ মুখার্জী৷ খবর খাবার সবই ভাজা হবে এই শো-এ৷ নাম তাই ভাজা খবর৷

একসময়ের কালজয়ী হাস্যকৌতুকের রাজা ছিলেন ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় ও জহর গাঙ্গুলি৷ পেট ফাটা হাসিতে ফেটে পরত অন্ধকার প্রেক্ষাগৃহ৷ সেই দুই প্রবাদ প্রতিম কৌতুক শিরোমণিকে মাথায় রেখেই হাস্যরসাত্মক একটি খবরের অনুষ্ঠানের কথা ভাবেন কলকাতা 24×7 এর কর্ণধার সৌমেন সরকার৷ ভাবনার শুরু সেখান থেকেই৷ ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘ভা’ এবং জহর গাঙ্গুলির ‘জ’ নিয়ে হয় ‘ভাজ খবর’ যা পরবর্তীতে ‘ভাজা খবর’ হয়৷ তাতে তড়কা মেশান ডিরেক্টর সূপর্ণা সিনহা রায়৷ বিভিন্ন সময়ের বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা ও নানান খবর নিয়ে শুরু হয়ে যায় ভাজা খবর৷ যার প্রধান চরিত্রে রয়েছেন খরাজ মুখার্জী৷ তাঁর সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করছেন মধুরিমা দত্ত৷ যাঁকে আপনারা শিউলি চরিত্রে দেখতে পাবেন পর্দায়৷ স্ক্রিপ্টের দায়িত্বে রয়েছেন ডঃ কৃষ্ণেন্দু চ্যাটার্জী৷

ডিজিটাল বা টিভির পর্দায় এমন অভিনব ভাবনা নিয়ে অনুষ্ঠান এই প্রথম৷ বিরাট ভদ্রর চরিত্রে অভিনয় করতে গিয়ে খরাজ মুখার্জী জানিয়েছেন “এমন অভিনব ভাবনা নিয়ে তৈরি এই অনুষ্ঠান সকলের ভালো লাগবে৷” ডঃ কৃষ্ণেন্দু জানিয়েছেন “মূল চরিত্রের নাম বিরাট ভদ্র তবে তিনি কতটা ভদ্র তা এপিসোড শুরু না হলে দর্শকরা বুঝতে পারবেন না৷” খরাজ মুখার্জীকে কো-অ্যাক্টর হিসেবে পেয়ে বেজায় খুশি মধুরিমা দত্ত জানিয়েছেন “বিরাট ভদ্রর কাছে রান্না শিখতে এসে বেশ কঠিন কঠিন রান্না তাঁকে করতে হচ্ছে, যেখানেই খেই হারিয়ে ফেলছেন বিরাট ভদ্র তাঁকে শিখিয়ে দিচ্ছেন ও ধরিয়ে দিচ্ছেন ভুল৷ আমি খুব এক্সাইটেড৷”

প্রডিউসার সৌমেন সরকার জানিয়েছেন অনুষ্ঠানটি নিয়ে বেশ আশাবাদী তিনি৷ তাঁর কথায় “কলকাতা 24×7 ও CFP Films এর উদ্যোগে খবর নিয়ে কূটকাচালি ও সুস্বাদু রান্না নিয়ে ভাজা খবর আসতে চলেছে এই নতুন বছরেই৷” ডিরেক্টর সুপর্ণা সিনহা রায় জানান “বিরাট ভদ্র ও শিউলির মধ্যে একটা মাখোমাখো সম্পর্ক তৈরি হয়েছে যা দর্শকরা না দেখলে বড় মিস করবেন৷ চপচপে তেলে ভাজা খেতে বাঙালি যদি পছন্দ করেন তাহলে ‘ভাজা খবরে’ খাবার ও খবর দুটোই তাঁদের সমান আকর্ষণ করবে বলে আমার ধারণা৷” মজার খবর ভাজা খবর৷ খবরের সঙ্গে রয়েছে রসনাতৃপ্তি৷ সেই রান্না রাঁধতে গিয়ে বিরাট ও শিউলি কতটা ল্যাজে গোবরে হয়েছে তা দেখতে মিস করবেন না ‘ভাজা খবর’৷