করাচি: এতদিন রেকর্ড ছিল ভারতের নামে৷ এবার সেই নজিরে থাবা বসাল পাকিস্তান৷ টপকাতে না পারলেও ভারতের সঙ্গে একাসনে বসে যুগ্মভাবে রেকর্ড ভাগ করে নিল পাক ক্রিকেট দল৷

টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে একই ইনিংসে ব্যাটিং অর্ডারের প্রথম চার জন ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরি করার রেকর্ড ছিল একা ভারতের৷ ২০০৭ সালে ঢাকায় বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভারতের দীনেশ কার্তিক, ওয়াসিম জাফর, রাহুল দ্রাবিড় ও সচিন তেন্ডুলকর শতরান করেছিলেন৷ করাচিতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে পাকিস্তানের প্রথম চার জন ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরি করে টিম ইন্ডিয়ার সেই নজির ছুঁয়ে ফেলে৷ অর্থাৎ, টেস্টের ইতিহাসে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার একই ইনিংসে কোনও দলের প্রথম চার জন ব্যাটসম্যান শতরান করলেন৷

আরও পড়ুন: জয়সূর্য্যকে টপকে বিশ্বরেকর্ড হিটম্যানের

তফাৎ একটাই, ভারতের চার ব্যাটসম্যান টেস্টের প্রথম ইনিংসে এমন কৃতিত্ব দেখিয়েছিলেন৷ এক্ষেত্রে পাকিস্তানের হয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে সেঞ্চুরি করেন শান মাসুদ, আবিদ আলি, আজহার আলি ও বাবর আজম৷

শেরে বাংলা ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে ভারতের হয়ে ওপেন করতে নেমে দীনেশ কার্তিক ১২৯ রান করে আউট হন৷ অপর ওপেনার জাফর ১৩৮ রান করে অবসৃত হন৷ রাহুল দ্রাবিড় ১২৯ রান করে ক্রিজ ছাড়েন৷ সচিন তেন্ডুলকর অপরাজিত থাকেন৷ সেই ম্যাচে হাফ-সেঞ্চুরি করেন মহেন্দ্র সিং ধোনিও৷ তিনি ৫১ রান করে অপরাজিত ছিলেন৷ ভারত ইনিংস ডিক্লেয়ার করেছিল ৩ উইকেটে ৬১০ রান তুলে৷

আরও পড়ুন: সচিন…সচিন…প্রথম কে ডেকেছিলেন, তেন্ডুলকর নিজেই জানালেন সেকথা

করাচির ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে শান মাসুদ ১৩৫, আবিদ আলি ১৭৪ ও আজহার আলি ১১৮ রান করে আউট হন৷ বাবর আজম অপরাজিত থাকেন ব্যক্তিগত ১০০ রানে৷ পাকিস্তান দ্বিতীয় ইনিংসে তোলে ৩ উইকেটে ৫৫৫ রান৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.