নয়াদিল্লি: প্রথম বেসরকারি হাই স্পিড ট্রেন তেজস এক্সপ্রেস আনার পরে বেসরকারিকরণের ব্যাপারে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছিল ভারতীয় রেল। বৃহস্পতিবার কেন্দ্র সিদ্ধান্ত নিয়েছে, ১৫০ টি ট্রেন ও ৫০টি রেল স্টেশনকে তুলে দেওয়া হবে বেসরকারি সংস্থার হাতে। নীতি আয়োগের সিইও অমিতাভ কান্ত কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে রেলমন্ত্রকে একটি চিঠি লেখেন। জানা জাচ্ছে এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে।

কান্ত রেলওয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান ভি কে যাদবকে চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন, ৬টি বিমানবন্দরকে বেসরকারিকরণ করা বেশ লাভজনক হয়েছে। ফলে রেলের ক্ষেত্রেও এই প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে আরও জানানো হয়েছে, প্রাথমিক পর্যায়ে ১৫০টি ট্রেন বেসরকারিকরনের কথা ভাবা হচ্ছে। যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচলের ক্ষেত্রে এটি একটি দৃষ্টান্তমূলক পদক্ষেপ হতে পারে। এছাড়াও, এই উদ্যোগ সফল করার জন্য দায়িত্ব নিতে পারেন সচিবদের একটি হাই প্রোফাইল গ্রুপ।

৪ অক্টোবর চালু হয় তেজস এক্সপ্রেস। এটি ভারতীয় রেলে প্রথম বেসরকারি হাই স্পিড ট্রেন। উদ্বোধন করেছিলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। লখনউ-দিল্লি রুটের এই ট্রেনের গতি ও পরিষেবার জন্য যাত্রীরাও খুশি। এমনটাই দাবি রেলের। ট্রেন দেরিতে চললে ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিমা, স্বাস্থ্যকর খাবার-সহ একাধিক পরিষেবা দেওয়া হয়েছে ওই ট্রেনের যাত্রীদের।