নয়াদিল্লি: করোনা মোকাবিলায় প্রচুর অর্থের দরকার দেশের সব রাজ্যেরই। তাই এবার বিশেষ আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করল কেন্দ্র। বৃহস্পতিবার ঘোষণা করা হল ১৫০০০ কোটি টাকার প্যাকেজ।

তিনটি পর্যায়ে এই স্কিম কার্যকর হবে বলে জানা গিয়েছে। সেই তিনটি পর্যায় হল ২০২০-র জানুয়ারি থেকে জুন, ২০২০-র জুন থেকে ২০২১-এর মার্চ ও ২০২১-এর এপ্রিল থেলে ২০২৪-এর মার্চ মাস পর্যন্ত। সব রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলির মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হবেই

হাসপাতাল ও আইসিইউ গুলির উন্নয়নের জন্য এই টাকা খরচ করা হবে। PPE ও মাস্ক কেনার জন্যও ওই টাকা খরচ করা হবে।

এদিকে দেশে ফের বেড়েছে মৃত্যুর সংখ্যা। একদিনে মৃত্যু হল ১৭ জনের। আক্রান্তের সংখ্যা বেঁড়ে দাঁড়াল ৫৭৩৪। যা দেশের জন্য যথেষ্ট উদ্বেগজনক।

শেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৪৭ জন। মোট আক্রান্ত ৫৭৩৪ জনের মধ্যে বর্তমানে ৪৭৩ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। দেশে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৬৬ জনের।

অন্যদিকে দেশে এখনও গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়নি বলে জানিয়েছে ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন। ‘হু’ এর দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার প্রধান আধিকারিক পুনম ক্ষেত্রপাল সিং জানিয়েছেন, যখন সংক্রমণের উৎস খুঁজে পাওয়া যায় না, তখন সেই দেশে সামাজিক সংক্রমণ শুরু হয়েছে বলা যেতে পারে। কিন্তু ভারতের ক্ষেত্রে বর্তমানে যে সমস্ত সংক্রমণের খবর পাওয়া যাচ্ছে, তাতে তার উৎস সন্ধান করা সম্ভব হচ্ছে। তাই ভারতে যে গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়ে গিয়েছে, একথা এখনই বলা যাচ্ছে না।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।