নয়াদিল্লি: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত গোটা দেশ। কোরোনার রাশ টানতে টিকাকরণের উপর জোর দিয়েছে প্রধানমন্ত্রী।ইতিমধ্যেই চারদিন ব্যাপী ‘টিকাদান উৎসব’ চালু করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।তবে টিকার কার্যকারিতা নিয়ে মানুষ এখনও মানুষ দ্বিধাগ্রস্ত। অনীহার কারণে টিকা নেননি অনেকেই। এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষকে ভ্যাকসিন নিতে উৎসাহিত করতে ফিক্সড ডিপোজিটে বাড়তি সুদ দেওয়ার অফার নিয়ে এসেছে সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া।

এই রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাঙ্কের তরফে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বলা হয়েছে যে, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে টিকাদানকে উৎসাহিত করতেই সেন্ট্রাল ব্যাঙ্কের সামাজিক প্রতিশ্রুতি পালন। সুস্থ সমাজ গঠনের জন্যই তাদের এই উদ্যোগ। তবে এই প্রকল্পের নতুন নাম দেওয়া হয়েছে ইমিউন ইন্ডিয়া ডিপোজিট স্কিম।এমনকি ব্যাঙ্কের তরফে নাগরিকদের কাছে ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্যে অনুরোধ করা হয়েছে। পাশাপাশি বলা হয়েছে, নাগরিকদের এই সুযোগ দেওয়া হচ্ছে, তাঁদের সুরক্ষার কথা ভেবেই।

সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক এব্যাপারে ২৫ বেসিস পয়েন্ট ( এক বেসিস পয়েন্ট হল ০.০১%) বাড়তি দেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে তা দেওয়া হবে যাঁরা ভ্যাকসিন নিয়েছে, একমাত্র তাঁদেরই। পাশাপাশি বয়স্ক নাগরিকরাও বাড়তি ২৫ বেসিস পয়েন্ট সুদ পাবেন। ১১১১ দিনের জন্য অতিরিক্ত ২৫ বেসিস পয়েন্ট সুদ দেওয়া হচ্ছে। এই সুযোগ দেওয়া হচ্ছে যাঁরা ভ্যাকসিন নিয়েছেন, একমাত্র তাঁদের জন্যই। তবে এই সুযোগ সীমিত সময়ের জন্য।

অবশ্য ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্যে দেশবাসীকে উৎসাহ করতে এর আগে অনেক অফার সামনে এসেছে। কোথায়ও বলা হয়েছে ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট দেখলে বিয়ার ফ্রি। আবার কোথাও মহিলাদের নাকচাবি দেওয়া হয়েছে। তবে এই প্রথম কোনো রাষ্ট্রায়াত্ব ব্যাঙ্ক এমন অফার সামনে আনল।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লক্ষ ৬১ হাজার ৭৩৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ৮৭৯ জনের। এই নিয়ে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১ কোটি ৩৬ লক্ষ ৮৯ হাজার ৪৫৩ জন। মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ৭১ হাজার ৫৮ জন।এখনও পর্যন্ত ১০ কোটি ৮৫ লক্ষ ৩৩ হাজার ৮৫ জনকে করোনা ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.