স্টাফ রিপোর্টার,কলকাতা: বিধাননগরের প্রাক্তন মেয়র সব্যসাচী দত্তকে নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই বিজেপি যোগের জল্পনা চলছিল৷ অবশেষে তিনি মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগ দিলেন৷ তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরই নিউটাউনের ঘূণিতে পালন করা হল ‘বিজয় উৎসব’৷ তবে বিজেপি নয়, ওই উৎসবে মেতেছিল তৃণমূলের কিছু কর্মী৷

সব্যসাচী দত্ত তৃণমূলের বিধায়ক থাকাকালীন মাঝে মাঝেই প্রকাশ্যে এসেছিলেন দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব৷ এক সময় নিউটাউনের তৃণমূল নেতা আফতাব উদ্দিন ছিল সব্যসাচী দত্তের বিরোধী৷ যিনি বর্তমানে রাজারহাট-নিউটাউনের তৃণমুল কংগ্রেস যুব সভাপতি৷ তার নেতৃত্বেই মঙ্গলবার নিউটাউনের ঘূণিতে ‘বিজয় উৎসব’ পালন করেন দলের কর্মীরা৷ আসলে ওই উৎসবকে তারা বলতে চাইছেন ‘আপদ বিদায় উৎসব’৷ আফতাব উদ্দিনের অনুগামীরা সবুজ আবির খেলে, বাজি ফাটিয়ে ওই উৎসব পালন করেন৷ এমনকি সব্যসাচী বিদায়ে তারা মিষ্টিমুখও করেন৷

মঙ্গলবার নেতাজি ইন্ডোরে অমিত শাহের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দিলেন বিধাননগর পুরসভার প্রাক্তন মেয়র তথা রাজারহাট-নিউ টাউনের বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত৷ বিজেপিতে নাম লিখিয়েই তিনি বিস্ফোরক মন্তব্য করেন৷ এনআরসি ইস্যুতে জোড়াল সওয়াল করেন সব্যসাচী। বলেন, অনুপ্রবেশকারীদের কোনও জায়গা নেই। বাংলাকে পাকিস্তান বানানোর চক্রান্ত চলছে। বাংলা যেন পাকিস্তান না হয়ে যায়। তাই বাংলায় এনআরসি হউক। এ যেন সরাসরি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন একদা তৃণমূলের টিকিটে জেতা বিধায়ক সব্যসাচী৷

এতদিন নিউটাউন,সল্টলেকে সব্যসাচী দত্ত বনাম কাকলী ঘোষ দস্তিদারের অনুগামীদের মধ্যে লড়াই মাঝে মাঝে তৃণমূল দলকে অস্বস্তিতে ফেলত৷ এবার রাজনৈতিক মহল মনে করছে নিউটাউন,সল্টলেকে লড়াই জারি থাকবে, তবে সেটা হবে, তৃণমূল বনাম বিজেপি৷