সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা : চুলের যত্ন বাড়াতে শহরে নতুন বিউটি সালোঁ নিয়ে এল সেলেব টাচ। পার্কস্ট্রিটের মত জায়গায় এই সালোঁটি নিয়ে এলেন রোমানা রাওয়াত। তবে এই বিউটি সালোঁ মেয়েদের জন্য নয়, ছেলেরাও এখানে তাদের চুল পরিচর্যা করাতে পারবেন। বাজারের অন্যান্য বিউটি সালোঁ গুলোর মতোই একদম সঠিক দামেই হয়ে যাবে কেশ চর্চা।

গরম কাল এখনও শেষ হয়নি। সামনেই আবার বর্ষা। চুলের যত্ন যদি না নিয়েছেন তাহলেই গেল। আর চুল মুখের সৌন্দর্যের জন্য কত প্রয়োজনীয় তা আর আলাদা করে বলার প্রয়োজন পড়ে না। বর্ষার আগে সেই সমস্যাই মেটাবে ‘সেলেব টাচ’ বিউটি অ্যান্ড ফ্যামিলি সালোঁ। পার্কস্ট্রিট মোড় থেকে রফিক কিদওয়াই রোডের দিকে এগোলেই রয়েড স্ট্রীট। সেখানেই মিলবে এই বিউটি সালোঁর ঠিকানা। প্রায় ৬০০ স্কোয়ার ফুট জায়গার উপর তৈরি হয়েছে এই সালোঁটি। রবিবসারীয় কলকাতায় সালোঁর উদ্বোধনও হয়ে গেল। ফিতে কেটে এর শুভ যাত্রা আরম্ভ করলেন অভিনেত্রী সুচন্দ্রা বানিয়া।

সালোঁর কর্ত্রী রুমানা রাওয়াত বলেন, “এই সালোঁ অন্যন্য সালোঁর থেকে একটু হলেও আলাদা।” সবাই নিজের জিনিষের গুণ গাইতে পছন্দ করেন। কিন্তু কিসের টানে শহরের মানুষ ছুটে আসবেন এখানে? রুমানা রাওয়াত বলেন, “আমার এই সালোঁর বিশেষত্ব হল নেল আর্ট। সাধারণত সালোঁতে এই নেল আর্টের ব্যবস্থা থাকে না। সেটাই আমরা করেছি। আর এটাই আমাদেরকে অন্যদের থেকে এগিয়ে রাখবে।”

পার্কস্ট্রিট চত্বর হলেও বেশ কিছুটা হাঁটতে হতে পারে সেলেব টাচের দোরগোড়ায় পৌঁছাতে গেলে। এটা কি কোনও সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে ? রুমানা জানিয়েছেন, “মানুষের কোনও অসুবিধাই হবে না আমাদের কাছে পৌঁছোতে গেলে। কারন সেলেব টাচ খুবই জমজমাট এলাকাতেই রয়েছে। সবকিছু দেখে শুনেই আমরা এই জায়গা বেছে নিয়েছি।”

অভিনেত্রী সুচন্দ্রা বানিয়াও বলেন , “নেল আর্টই এগিয়ে রাখবে সেলেব টাচকে। আমি নিজেও নেল আর্ট খুবই পছন্দ করি। আশা করি সব মেয়েদেরই এটা ভাল লাগবে। কারণ এটাই এখনকার ট্রেন্ড।” অভিনেত্রী আরও জানিয়েছেন , “ছেলে মেয়ে সবারই এই হেয়ার ট্রিটমেন্টের মধ্যে দিয়ে যাওয়া উচিৎ। কারন নিজেকে স্মার্টভাবে রিপ্রেজেন্ট করাটা এখনকার দিনে খুবই প্রয়োজনীয়।”

বাজারের অন্যন্য সালোঁর তুলনায় কম না হলেই একই দামে মিলবে স্মার্ট এবং নিউ হেয়ার কাট। তাই আর দেরি কেন? বর্ষার আগে নিজেকে স্মার্ট হেয়ার কাটিংয়ে দেখতে চলে আসুন সেলেব টাচে।