ফাইল ছবি

নয়াদিল্লিঃ  সারদা-কান্ডে নড়েচড়ে বসেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। তদন্তের একেবারে গভীরে পৌঁছতে প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় সিবিআই। কিন্তু খোঁজ নেই তাঁর। রক্ষাকবচ তুলে নেওয়ার পর থেকেই কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না কলকাতার প্রাক্তন মহানাগরিককে। তাঁর খোঁজে হন্যে হয়ে খুঁজছে সিবিআই। এই অবস্থায় বারাসত আদালতে আগাম জামিনের আবেদন জানিয়েছেন রাজীব।

পালটা আইনি বাঁধনকে আরও শক্ত করতে কড়া পদক্ষেপ নিল সিবিআই। সুপ্রিম কোর্টে পালটা ক্যাভিয়েট দাখিল করে রাখল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। সোমবার আদালতের কাজ বন্ধ হওয়ার কিছুক্ষণ আগে এই ক্যাভিয়েট দাখিল করেন সিবিআইয়ের আইনজীবী। একতরফা ভাবে যাতে কখনই রাজীবের বক্তব্য না শোনা হয় সেজন্যেই আগে থেকে ক্যাভিয়েট দাখিল করে রাখা হল।

ইতিমধ্যে রাজীব কুমারের উপর রক্ষাকবচ তুলে নিয়েছে আদালত। ফলে যে কোনও মুহূর্তে তাঁকে গ্রেফতার করতে পারে সিবিআই। এই অবস্থায় বারাসত আদালতে আগাম জামিনের আবেদন জানিয়েছেন রাজীব। সিবিআইয়ের আশঙ্কা হয়তো লুকোচুরি চালানোর মধ্যেই হয়তো সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হতে পারেন কলকাতার প্রাক্তন নগরপাল। সেক্ষেত্রে একতরফাভাবে যাতে আদালত রাজীব কুমারের বক্তব্য না শোনে সেজন্যে নিজেদের প্রস্তুতিও সেরে রাখল সিবিআই। আর তা হল ক্যাভিয়েট দাখিল।

আজ সোমবার সকাল থেকে চলছে সিবিআই-রাজীব টানাপোড়েন। রাজীবের খোঁজে ইতিমধ্যে নবান্নে হানা দিয়েছেন সিবিআইয়ের তদন্তকারী আধিকারিকরা। প্রাক্তন নগরপাল কোথায় তা জানতে স্বরাষ্ট্রসচিব, ডিজিকে চিঠি দিয়ে এসেছেন তদন্তকারীরা। একদিকে যখন এই পরিস্থিতি অন্যদিকে আইনি প্যাঁচেও কলকাতার প্রাক্তন নগরপালকে বেঁধে ফেলতে চাইছে সিবিআই।