স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: চিটফান্ড কাণ্ডে সিবিআইয়ের নজরে এবার রাজীব ঘনিষ্ঠ এক পুলিশ কর্তা। ইতিমধ্যেই তাকে চিঠি দিয়ে বেশ কিছু নথি চাওয়া হয়েছে।

সিবিআই সূত্রে খবর, ডিসি পোর্ট ওয়াকার রেজাকে একটি চিঠি দেওয়া হয়েছে। তাতে তিন বছর আগের বেশ কিছু নথি চাওয়া হয়েছে তার কাছে। আগামী ৭ দিনের মধ্যে ওই নথি সিবিআইকে জমা দিতে বলা হয়েছে। সল্টলেক সিজিও কমপ্লেক্সের সিবিআই দফতর থেকে তাকে মেইল করা হয়েছে। তবে এই বিষয়ে ডিসি পোর্ট ওয়াকার রেজা সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, ছুটিতে আছি, নোটিসের বিষয় কিছু বলতে পারব না।

প্রসঙ্গত, বছর তিনেক আগে সিআইডির স্পেশাল সুপার ছিলেন ওয়াকার রেজা। সেই সময় শুল্ক দফতরের সঙ্গে একটি বৈঠক করেন তিনি। সূত্রের খবর ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজীব কুমারও। তৎকালীন সময়ের নথি এবার হাতে পেতে চাইছে সিবিআই।

এদিকে সিবিআই ১০ দিন ধরে প্রতিদিনই হন্যে হয়ে খুঁজে চলেছে প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে। এখন তার কোনও হদিশ পায়নি সিবিআই । এর মাঝেই রবিবার ফের রাজীবের সরকারি বাসভবন পার্ক স্ট্রিটে পৌঁছায় সিবিআই। রোজভ্যালিকাণ্ডে রাজীব কুমার কে হাজিরার জন্য দেওয়া হয়েছে নোটিশ। সারদাকাণ্ডের পাশাপাশি রোজভ্যালি কান্ডেও রাজীব কুমার কে বিপাকে ফেলতে চাইছে সিবিআই। এমনটাই সূত্রের খবর।

অন্যদিকে প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার এর উপর থেকে রক্ষাকবচ তুলে নেওয়ার পর কেটে গিয়েছে ১০ দিন। কিন্তু এখনও তার খোঁজ পায়নি সিবিআই। এই নিয়ে বিভিন্ন মহলের মানুষের মনে দেখা দিয়েছে নানা প্রশ্ন।

অন্যান্য দিনের মতো রবিবারও সিবিআইয়ের বেশ কয়েকটি টিম কলকাতার বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি করেছে । প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার তথা এডিজি সিআইডি রাজীব কুমারের সরকারি বাসভবন পার্কস্ট্রিট, আলিপুর ও লেকটাউনে হানা দেয় সিবিআই। পৌঁছে গিয়েছিল কালীঘাটেও। কিন্তু কোথাও রাজীব কুমারকে তারা খোঁজে পায়নি।