ফাইল ছবি

কলকাতাঃ  ফের কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়িতে সিবিআই তল্লাশি। পার্কস্ট্রিটের বাড়িতে পৌঁছল সিবিআই আধিকারিকদের একটি দল। সোমবার দুপুরে ৮ সদস্যের একটি সিবিআই টিম রাজীব কুমারের বাড়িতে পৌঁছয়। জানা গিয়েছে, সেখানে দীর্ঘক্ষণ তল্লাশি চালান তদন্তকারীরা। এমনকি ফের একবার রাজীব কুমারের স্ত্রীকেও তদন্তকারীরা জিজ্ঞাসাবাদ করেন বলে সূত্রে জানা গিয়েছে।

ইতিমধ্যে কলকাতা পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের উপর দিয়ে উঠে গিয়েছে রক্ষাকবচ। যে কোনও মুহূর্তে গ্রেফতার করা হতে পারে তাঁকে। কিন্তু ১১ দিন কেটে গেলেও রাজীব কুমারের খোঁজ পেতে কালঘাম ছুটছে তদন্তকারীদের। কখনও ডায়মন্ডহারবার কখনও শহরের বিভিন্ন হোটেলে হানা দেয় তদন্তকারীরা। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনও সূত্র পর্যন্ত রাজীবের পাওয়া যায়নি। এই অবস্থায় ফের একবার রাজীবের খোঁজ পেতে তাঁর পার্কস্ট্রিটের বাড়িতে সিবিআই।

অন্যদিকে, আগাম জামিন পেতে ফের আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন রাজীব কুমার। কলকাতা হাইকোর্টে তাঁর স্ত্রীয়ের মাধ্যমে আগাম জামিনের আবেদন জানিয়েছেন। আগামীকাল মঙ্গলবার সেই সংক্রান্ত মামলার শুনানি রয়েছে। জামিন রুখতে পালটা আইনি প্রস্তুতি সিবিআইয়েরও। উল্লেখ্য, এর আগে আলিপুর আদালতে আগাম জামিনের আবেদন খারিজ হয়ে যায়।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.