স্টাফ রিপোর্টার, বারাসত : ‘নজিরবিহীন ছেলেখেলার তদন্ত করছে সিবিআই।’ শুক্রবার বারাসত আদালতে সারদা মামলায় হাজিরা দিতে এসে এই মন্তব্য সারদা কর্তা সুদীপ্ত সেনের। তার আক্ষেপ জেলেতেই মৃত্যু, আর কিছু করার নেই৷

এদিন সারদা মামলার ফাইনাল চার্জশিট কবে দেওয়া হবে তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন খোদ বিচারক সোমনাথ চক্রবর্তী। পাশাপাশি, আদালতে তদন্তকারী আধিকারিকের অনুপস্থিতিতে ক্ষুব্ধ হন বিচারক। সিবিআইয়ের আইনজীবীকে তাঁর নির্দেশ তদন্তকারী আধিকারিকের সঙ্গে কথা বলে চূড়ান্ত সময়সীমা আদালতে জানাতে ৷ সিবিআই আইনজীবী এদিন আদালতকে জানান, আগামী সাত দিনের মধ্যে তারা রিপোর্ট দিয়ে জানাবে কত দিন পর তারা ফাইনাল চার্জশিট জমা দেবেন।

ইতিমধ্যে এই মামলায় সাতটি চার্জশিট জমা দিয়েছে সিবিআই। আজও অভিযুক্তদের কপি নিয়ে নেওয়ার কথা বলেন বিচারক। তখনই বিচারপ্রক্রিয়ার দীর্ঘসূত্রিতা নিয়ে কথা বলেন অভিযুক্তদের আইনজীবীরা৷

তারপরই ক্ষুব্ধ বিচারক সিবিআইয়ের আইনজীবীর কাছে জানতে চান কবে তারা ফাইনাল রিপোর্ট দেবেন। এইদিন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্র আদালতের কাছে ভারত বাংলাদেশের মধ্যে হওয়া একটি মিছিলে উপস্থিত থাকতে চেয়ে পাসপোর্ট ফিরে পাওয়ার আবেদন করেন।

একই সঙ্গে সংগঠনের কাজে সারা ভারতে সহজে ঘোরারও অনুমতি চান। প্রয়োজনে এই মামলার তদন্তকারী অনুমতি নিয়েও চলতে চান তিনি বলে জানান৷ এদিন প্রাক্তন সাংসদ কুনাল ঘোষ আদালতকে জানান একই মামলায় তাকে হাওড়া আদালতেও তাকে হাজিরা দিতে হচ্ছে।

1 COMMENT

  1. এ আর নতুন কথা কি বোঝাপড়ার তদন্ত হচ্ছে এ কথা বামপন্থিরা আগেই বলেছে নন্দীগ্রামে মাওবাদীদের নিয়ে মমতার চক্রান্তের মতো সিঙ্গুর এর চক্রান্তের মতো যা বামপন্থীরা আগেই বলেছিল এখন ওদের লোকজন ই বলছে সেইরকম

Comments are closed.