নয়াদিল্লি: কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআইয়ের অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল এম নাগেশ্বর রাওকে৷ তাঁকে দমকল ও অসামরিক নিরাপত্তা ও হোম গার্ডের ডিরেক্টর জেনারেলের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে৷

আরও পড়ুন: নুসরত রথ টানলে হিন্দুরাও কি হজে যাবে, প্রশ্ন মুকুলের

১৯৮৬ সালের ওডিশা ক্যাডারের আইপিএস অফিসার৷ এর আগে সিবিআইয়ের অন্তর্বর্তী ডিরেক্টর হিসাবে কাজ করেছেন এম নাগেশ্বর রাও৷ সিবিআইয়ের ডিরেক্টর অলক ভর্মা ও সহকারী ডিরেক্টর রাকেশ আস্তানার দ্বন্দ্বের পরিপ্রেক্ষিতে তাঁকে ওই পদের দায়িত্ব দেওয়া হয়৷

আরও পড়ুন: এক ধাক্কায় দু’টাকার বেশি দাম বাড়ল পেট্রোল-ডিজেলের

অলক ভর্মা ও রাকেশ আস্তানা৷ একে অপরের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ করেন৷ তাদের দ্বন্দ্ব আদালত পর্যন্ত গড়ায়৷ চলতি বছরের ফেব্রুয়ারীতে ঋষীকুমার শুল্কা সিবিআই ডিরেক্টর হন৷ ওই সময় থেকেই ফের অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর পদ সামলাচ্ছিলেন নাগেশ্বর রাও৷

নাগেশ্বর রাওয়ের নির্দেশেই কলকাতা পুলিশ কমিশনারের বাড়িতে হানা দেয় সিবিআইয়ের গোয়েন্দারা৷ সেই দিনই একটি বেসরকারি সংস্থার সঙ্গে তাঁর যোগ রয়েছে বলে জানা যায়। সূত্রের খবর, কলকাতাস্থিত বেসরকারি ওই সংস্থার সঙ্গে অর্থনৈতিক একাধিক লেনদেন হয়েছিল নাগেশ্বর রাওয়ের স্ত্রী ও মেয়ের৷

আরও পড়ুন: বাজেট বক্তৃতায় বিবেকানন্দ-রামকৃষ্ণকে স্মরণ করলেন অর্থমন্ত্রী

এমনকী সিবিআই-এর প্রাক্তন অন্তর্বর্তী ডিরেক্টর নাগেশ্বর রাওয়ের বিরুদ্ধে হলফনামায় গুরুতর অভিযোগ আনেন কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার। হলফনামায় রাজীব কুমার অভিযোগ করেন, নাগেশ্বর রাওয়ের স্ত্রী ও মেয়ে নোটবন্দির সময়ে বিভিন্ন ভুয়ো সংস্থার সঙ্গে বেআইনি লেনদেনে জড়িত ছিলেন৷