সোচি: নকআউটে পর্তুগাল রক্ষণকে প্রায় একায় নাস্তানাবুদ করলেন৷ জোড়া গোলে উরুগুয়ে-কে শেষ আটে নিয়ে গেলেন৷আবার ম্যাচ শেষ করার আগেই চোট নিয়ে মাঠ ছাড়লেন৷শনিবারের সোচি ছিল এডিনসন কাভানির শো-স্টেজ৷ কিন্তু বিশ্বকাপের বাকি ম্যাচগুলোতে এরকম একজন গুরুত্বপূর্ণ প্লেয়ারকে কি চোটের হারাতে চলেছে উরুগুয়ের? উত্তরটা না৷

ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে পায়ের পাতায় ব্যাথা নিয়ে মাঠ ছাড়েন কাভানি৷পর্তুগালের তারকা ফরোয়ার্ড রোনাল্ডোর কাঁধে হাত দিয়ে তাঁর মাঠ ছাড়ার দৃশ্য ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়াতে৷যে দৃশ্য বিশ্ব ফুটবলে রোনাল্ডোর খেলোয়াড়সুলভ মনোভাবের পরিচয় হিসেবে প্রশংসিত হলেও ভয় ধরায় উরুগুয়ের সমর্থকদের মনে৷ এই অবস্থায় চোট! বিশ্বকাপে পরের ম্যাচে দলে থাকবেন তো পর্তুগাল বধের নায়ক৷

উত্তরটা দিয়েছেন কাভানি নিজেই৷চোট নিয়ে উরুগুয়ের তারকা স্ট্রাইকার জানান, ‘আশা করি, এটা তেমন কিছু নয়৷ দেখা যাক কি হয়, ডাক্তারি পরীক্ষা করা হবে৷ পায়ের পেশিতে ব্যথা অনুভব করেছিলাম৷ তাই খেলা চালিয়ে যেতে পারিনি৷’

ম্যাচের প্রথমার্ধে ৭ মিনিটে কাভানি দুরন্ত হেডে এগিয়ে যায় উরুগুয়ে৷ সুয়ারেজের ক্রস থেকে মাথা ঠেকিয়ে গোল করেন কাভানি৷৬২ মিনিটে বিশ্বমানের গোলে ফের উরুগুয়েকে এগিয়ে দিলেন কাভানি৷ রাশিয়ায় ৪ ম্যাচে এই নিয়ে তিনটি গোল দিলেন কাভানি৷ এরপর আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি রোনাল্ডোরা৷ উরুগুয়ে ম্যাচ জেতে ২-১ ব্যবধানে৷ আর্জেন্তিনার পর প্রি-কোয়ার্টার পর্ব থেকে বিদায় নেয় পর্তুগাল৷

জোড়া গোলে দলকে জয় এনে দেওয়া কাভানি শনিবারের ম্যাচ নিয়ে বলেন, ‘কিছু বলার মতো ভাষা নেই আমার৷ আমি খুশি, খুশি, খুশি৷ ভাবছি দেশে মানুষ কি করছে৷ স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছি৷’