নয়া দিল্লি: ‘ধর্ষণ মেনে নিয়ে কন্ডোম সঙ্গে রাখুন’ হ্যাঁ ঠিক এই ভাষাতেই ধর্ষণের ‘পক্ষে’ মন্তব্য করলেন স্বঘোষিত চিত্রপরিচালক ড্যানিয়েল শ্রবন। এই জঘন্য মন্তব্য করার পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁকে নিয়ে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়।

চার দিন আগেই হায়দরাবাদে এক পশু চিকিৎসককে ধর্ষণ করে মৃতদেহ পুড়িয়ে দেওয়া হয়। হায়দরাবাদের শামসাবাদ অঞ্চলের কাছে নর্দমার নীচের কালভার্ট থেকে মেলে ওই তরুণীর দেহ। এই নির্মম অপরাধ সামনে আসতেই প্রতিবাদে ফেটে পড়ে গোটা দেশ। দোষীদের কঠোর শাস্তির দাবিতে যখন মুখর আসমুদ্রহিমাচল। ঠিক সেই সময়েই নিজের ফেসবুকে পোস্ট করেন এই চিত্রপরিচালক। এই পোস্টের মাধ্যমে তিনি জানান, ১৮ বছরের ওপরের মেয়েদের ধর্ষণ সম্বন্ধে ‘শিক্ষিত’ হওয়া উচিত। এরপরে তিনি লেখেন, ‘মেয়েদের কখনই পুরুষদের যৌন ইচ্ছা অবদমিত করা উচিত নয়।’ এর স্বপক্ষে যুক্তি দিয়ে তিনি লেখেন, ‘যদি মেয়েরা এই ইচ্ছাকে সম্মান দিত তবে এই ধরনের ঘটনা ঘটত না।’

আরও পড়ুন- আবার, ধর্ষণ করে জ্বালিয়ে দেওয়া হল দেহ, উত্তেজনা এলাকায়

ভারতীয় মহিলাদের প্রতি তীব্র বিদ্বেষ ছুঁড়ে দিয়ে তিনি লেখেন, ‘ভারতীয় মেয়েরা যাদের বয়স আঠারোর উপরে তাঁদের প্রত্যেককে কন্ডোম সঙ্গে রাখা উচিত।’ এখানেই না থেমে তিনি ওই পোস্টে সরকারকে এমন প্রকল্পও আনতে বলেন যাতে ধর্ষণের পর মহিলাদের মেরে ফেলা না হয়।

এই পোস্টের পরেই একের পর এক সমালোচনা আছড়ে পড়তে শুরু করে ড্যানিয়েলের ফেসবুক প্রোফাইলে। একজন ব্যক্তির রন্ধ্রে রন্ধ্রে ঠিক কতটা অসুস্থ মানসিকতা থাকলে তবেই সে এমন পোস্ট করতে পারে অনেকে সেই প্রশ্নও তোলেন। এরপরেই নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলিট করে দেন তিনি। কিন্তু, এই পোস্টের পর ইন্টারনেটে ড্যানিয়েলকে রীতিমত তুলোধোনা করছেন নেটিজেনরা।