নয়াদিল্লিঃ মঙ্গলবার রাত ৮ টার ভাষণে প্রধানমন্ত্রী আত্মনির্ভর হতে বলেছিলেন। আর তার পাশপাশি ঘোষণা করেছিলেন আর্থিক প্যাকেজের। আর তার পর থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সকল ক্যান্টিনে স্বদেশী দ্রব্য ব্যবহারের আদেশ দেওয়া হয়েছে। পাশপাশি কেন্দ্রীয় বাহিনীর পরিবারের সদস্যরা যাতে এই দ্রব্য ব্যবহার করেন তাও জানানো হয়েছে। এমনটাই জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার সময়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জোর দিয়েছিলেন আত্মনির্ভরতায়। আর স্থানীয় জিনিস ব্যবহারের নির্দেশ দিয়েছিলেন। আর এরপর থেকেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কেন্দ্রীয় বাহিনীর ক্যান্টিনে যাতে স্বদেশী দ্রব্য ব্যবহার করা হয় সেই নির্দেশ যায় মন্ত্রকের তরফে। পয়লা জুন থেকে চালু হবে এই নির্দেশিকা।

দেশের সব কেন্দ্রীয় বাহিনীর পরিবারের তরফে এই ক্যান্টিনগুলি থেকে বছরে প্রায় কয়েক হাজার কোটি টাকার কেনাকাটা হয়ে থাকে। প্রায় ১০ লক্ষ জওয়ানদের পরিবারের সদস্যরা এই ক্যান্টিন থেকে জিনিসপত্র কেনেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে স্বদেশী পন্য ব্যবহারের অনুরোধ জানিয়েছেন। পাশপাশি আত্মনির্ভর হতে বলেছেন। যা আগামীদিনে ভারতকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে।

মূলত বিএসএফ, সিআইএসএফ, সিআরপিএফ, এনএসজি সহ একাধিক কেন্দ্রীয় বাহিনীর সদস্য এবং তাদের পরিবারের লোকেরা এই ক্যান্টিনের জিনিস ব্যবহার করেন। তিনি আরও জানিয়েছেন সকলের দেশীয় জিনিস ব্যবহারের পাশপাশি অন্যকেও ব্যবহার করতে উৎসাহ দেওয়া উচিত।

ক্যান্টিনের দায়িত্বে থাকা এক কর্মীর তরফে জানা গিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে যেহেতু এই নির্দেশ এসেছে তাহলে তা ব্যবহার করতে হবে। মঙ্গলবারের ভাষণে আত্মনির্ভর হওয়ার পাশপাশি ২০ লক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন। যা দেশের মোট জিডিপির ১০ শতাংশ। দেশীয় অর্থনীতি বাড়ানোর দিকেও জোর দিয়েছেন তিনি। পাশপাশি আগামী লক ডাউনের চতুর্থ দফা নিয়ে কিছুটা ইঙ্গিত দিয়েছেন।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব