নয়াদিল্লি: বিশ্বকাপের আগে দেশের জার্সিতে শেষ ম্যাচ খেলতে যাচ্ছে কোহলি অ্যান্ড কোং৷ বুধবার কোটলায় বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে সিরিজ নির্ণায়ক ম্যাচ ভারতের৷ অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে ঐতিহাসিক সিরিজ জিতে এলেও ঘরের মাঠে বিরাটদের সামনে সিরিজ হারের ভ্রুকুটি৷

মোহালিতে অজিদের বিরুদ্ধে পাঁচ ওয়ান ডে সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে ৩৫৮ রান তুলেও ম্যাচ জিততে পারেনি বিরাটবাহিনী৷ ১৩ বল বাকি থাকতেই চার উইকেটে ম্যাচ জিতে সিরিজে সমতা ফিরিয়েছে অজিবিগ্রেড৷ মহেন্দ্র সিং ধোনির অনুপস্থিতিতে বিরাটের নেতৃত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে৷ কিন্তু প্রাক্তন শ্রীলঙ্কান স্পিনার মুথাইয়া মুরলীধরন অবশ্য বিরাটের উপর ভারতীয় সমর্থকদের আস্থা রাখতে বলছেন৷

আগের ম্যাচে ভারতের হার প্রসঙ্গে বিশ্বের সর্বকালের সেরা অফ-স্পিনারের মতে, ‘দলের প্রতি আস্থা রাখতে হবে৷ ভারত এই মুহূর্তে ভালো খেলছে৷ বিশ্বকাপের কথা ভেবে পরীক্ষানিরীক্ষা করতেই হবে৷ সাফল্যের পথে ব্যর্থতা থাকবেই৷ কারণ একই দলে ১১ জন বিরাট কোহলি থাকতে পারে না৷ দলের প্রত্যেকে ম্যাচ-উইনার হতে পারে না৷ কিছু ম্যাচ জিতবে আবার কিছু হারবে৷ সব ম্যাচ জিততে হবে দলে ১১জনই কোহলি বা সচিন তেন্ডুলকর বা ডন ব্র্যাডম্যান থাকতে হবে৷ কিন্তু এমনটা বাস্তবে সম্ভব নয়৷’

চলতি বছরেই অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়দের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজ জিতে এসেছে বিরাটের ভারত৷ কোহলির নেতৃত্বেই অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে প্রথমবার দ্বি-পাক্ষিক ওয়ান ডে সিরিজ জেতে টিম ইন্ডিয়া৷ সুতরাং বিশ্বকাপের ঠিক আগে ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে এই সিরিজ বিরাটদের কাছে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ৷ ২-০ এগিয়ে থেকেও সিরিজ হারলে বিশ্বকাপের আগে ধাক্কা খাবে বিরাটদের প্রস্তুতি৷

সিরিজের প্রথম দু’টি ম্যাচ জিতলেও রাঁচি ও মোহালিতে অ্যারন ফিঞ্চদের সামনে আত্মসমর্পণ করে বিরাটবাহিনী৷ মোহালিতে দলের বেশ কয়েকটি পরিবর্তন করে ভারত৷ সিরিজের শেষ দু’টি ম্যাচে ধোনিকে বিশ্রাম দেন নির্বাচকরা৷ ফলে উইকেটের পিছনে গ্লাভস হাতে দেখা যাায় ঋষভ পন্তকে৷ কিন্তু তাঁর জঘন্য উইকেটকিপিং প্রশ্নের মুখে পড়ে৷ এছাড়াও রবীন্দ্র জাদেজাকে বসিয়ে কুলদীপ যাদবের সঙ্গে যুবেন্দ্র চাহালকে খেলায় ভারতীয় থিঙ্কট্যাঙ্ক৷

টিম কম্বিনেশন নিয়ে মুরলীধরন বলেন, ‘দল হিসেবে ভারত ভালোই খেলছে৷ বিশ্বের ভিন্ন পরিবেশেও ভারতীয় খেলোয়াড়রা নিজেদের প্রতিভা দেখিয়েছে৷ শুধুমাত্র একটি মাত্র খারাপ ম্যাচের জন্য তাদের সমালোচনা করা ঠিক হবে না৷ এতে বিশ্বকাপে খেলোয়াড়দের উপর বাড়তি চাপ পড়বে৷’৩০ মে থেকে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের মাটিতে বসছে দ্বাদশ ওয়ান ডে বিশ্বকাপ৷ ভারতের প্রথম ম্যাচ ৫ জুন৷ প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা৷