ফ্রান্স : কলকাতায় হয়ে গিয়েছে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব কিন্তু কান চলচ্চিত্র উৎসব যে কবে আদৌ অনুষ্ঠিত হবে তা নিয়ে আবারও প্রশ্ন চিহ্ন চলে এল। কারণ ২০২১-এও আরও একবার বিশ্বের অন্যতম পুরনো এই চলচিত্র উৎসবকে পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কমিটি স্পষ্ট জানিয়েছে করোনার জন্যই তাঁদের এই সিদ্ধান্ত।

কমিটি জানিয়েছে জুলাই মাসে অনুষ্ঠিত হবে কান ফিল্ম উৎসব। ৬ জুলাই শুরু হয়ে ১৭ তারিখ শেষ হবে এই চলচ্চিত্র উৎসব। কিন্তু ২০২০ সালে প্রথমবার পিছনোর পর কান ফিল্ম উৎসব কমিটি জানিয়েছিল ১১ মে ২০২১এ উৎসব শুরু হবে। চলবে ২২মে পর্যন্ত। এবার তা আরও পিছলো। এই নিয়ে তিনবার ৭৪তম কান ফিল্ম উৎসবের তারিখ পিছিয়ে যাওয়ায় প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে আদৌ কবে ফিল্ম উৎসব অনুষ্ঠিত করা সম্ভব হবে। উৎসব কমিটির চিন্তা করোনা, কারণ বিভিন্নদেশ থেকে পরিচালক এবং মানুষ আসবে উৎসবে অংশ নিতে। সেখানে কতটা দুরত্ববিধি এবং করোনা বিধি মানানো যায় তা নিয়ে আরও একটু সময় নিতে চাইছে তারা। পাশাপাশি সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার কোথাও চিন্তা করছেন তাঁরা।

এর আগে বিশ্বের সম্মানীয় এই ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল করোনভাইসারের প্রাদুর্ভাবে পিছিয়ে যায় ২০২০ সালে। তখন ১২ থেকে ২৩ মে অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল। তা করা যায়নি। ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইম্যানুয়েল ম্যাক্রোঁ দেশে লকডাউন জারি করার পরই ফেস্টিভ্যাল পিছিয়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করে দিয়েছিল কান কর্তৃপক্ষ। কান চলচ্চিত্র উৎসব ২০২০ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল ১২-২৩ মে। করোনার কারণেই, পিছিয়ে জুনের শেষ বা জুলাইয়ের শুরুতে করার চেষ্টা করেছিল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু তা করা যায়নি।

২০২০ সালে উৎসবের বিবৃতিতে বলা হয়েছিল, ‘উৎসবকে রক্ষা করার জন্য অনেক যাচাই করেই পিছিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’ আরও বলা হয়েছিল, ‘যত তাড়াতাড়ি ফ্রান্স এবং আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য পরিস্থিতির বিকাশ হবে প্রকৃত সম্ভাবনা মূল্যায়নের পরই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’ বছর পেরিয়ে ২০২১ আরও একবার পিছোল চলচ্চিত্র উৎসব।

আট জানুয়ারি কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব শুরু হয় শহরে। উৎসবের শুরুতে ভার্চুয়ালি এই অনুষ্ঠানে ছিলেন শাহরুখ খান। এই বছরে উদ্বোধনী ছবি ছিল ‘অপুর সংসার’। বিকেল পাঁচটায়, রবীন্দ্র সদনে শুরু হয় উৎসব। নন্দন চত্বরে এ বারও তৈরি হয় ‘সিনে আড্ডা’। সিনেমার বিশিষ্টরা এখানে বিভিন্ন আলোচনায় অংশ নিয়েছিলেন। এ বারও ছিল সেলফি জোন, নন্দন চত্বরে নজরকাড়া বেশ কয়েকটি ইনস্টলেশন ছিল। এ বছর কোনও ডেলিগেট ফি দিতে হয়নি।

টিকিট বুক করা গিয়েছিল অনলাইনে এবং বিনামূল্যে। সংক্রমণ এড়াতেই এই ব্যবস্থা করেছেন ‘কিআইএফএফ’ কর্তৃপক্ষ। ২৬তম ‘কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’-এ দেখানো হয় ৮১টি ফিচার ছবি। তথ্যচিত্র ছিল ৫০টি। ছিল সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের জীবনের উপরে প্রদর্শনী। জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে ফ্রেডরিকো ফেলিনি, এরিক রোমার, পণ্ডিত রবিশঙ্কর, হেমন্ত মুখোপাধ্যায় আর ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়কে সম্মান জানানো হয় তাঁদের ছবির প্রদর্শনের মাধ্যমে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।