স্টাফ রিপোর্টর, কলকাতা: বাংলায় দল একলা লড়বে নাকি সিপিএমের সঙ্গে হাত মেলাবে, তা কিছুক্ষণের মধ্যে অফিসিয়ালি স্পষ্ট করবেন কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ সোমবার সকাল নটায় দিল্লিতে কংগ্রেসের কেন্দ্রীয় নির্বাচনী কমিটির বৈঠক বসেছে৷ সেই বৈঠকে উপস্থিত রয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র৷ সূত্রের খবর, আজকেই বাংলার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হয়ে যাবে৷

আরও পড়ুন: গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী পদে প্রমোদে-ই আস্থা রাখছে বিজেপি

সিপিএমের শর্ত মেনে কংগ্রেস জোট করবে কিনা-তা চূড়ান্ত করতে গত কয়েকদিন ধরে বৈঠকের পর বৈঠক করেছেন বিধানভবনের কর্তারা৷ সেই বৈঠকের একটাই নির্যাস, অনেক হয়েছে, আর নয়৷ মাথা নত করে বামেদের সঙ্গে জোট সম্ভব নয়৷ গতকাল রবিবার বিকেলে ভিডিও কনফারেন্সে রাহুল গান্ধীকে সেকথা জানান সোমেন মিত্র৷ দিল্লির কোর্টে বল ঠেলে সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, অসম্মানের জোট আমরা চাই না৷ এরপর হাইকম্যান্ড যা সিদ্ধান্ত নেবে৷ হাইকম্যান্ডের চূড়ান্ত

সিদ্ধান্ত জানতে রবিবার রাতেই দলের প্রার্থী তালিকা দিল্লি পৌঁছে গিয়েছেন তিনি৷জানা যাচ্ছে, সোমবারই রাহুল গান্ধীর দরবারে বাংলার জোট মামলার নিষ্পত্তি হয়ে যাবে৷ বিকেলের মধ্যেই পশ্চিমবঙ্গের প্রথম দফার প্রার্থী তালিকাও ঘোষণা হয়ে যেতে পারে বলে খবর৷

যদি কংগ্রেস ৪২ কেন্দ্রে প্রার্থী দেয় তাহলে তিন দফায় এরাজ্যের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার কথা৷ কিন্তু যদি জাতীয় স্তরে ভোট পরবর্তী সমীকরণের কথা ভেবে রাহুল গান্ধী অন্যরকম কোনও সিদ্ধান্ত নেন তাহলে একদফাতেই প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হয়ে যাবে৷

আরও পড়ুন: খুনে অভিযুক্তকে জামিনের জন্য সরকারী আইনজীবীকে নির্দেশ অনুব্রত’র

সূত্রের খবর, বাংলায় কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকায় গতবারের জয়ী সাংসদ অধীর চৌধুরী, আবু হাসেম খান চৌধুরী, অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়ের নাম তো রয়েইছে৷ সেইসঙ্গে উত্তর মালদহে ঈশা খান চৌধুরী, বসিরহাটে কাজি আব্দুল, পুরুলিয়ায় নেপাল মাহাতোর নাম রয়েছে প্রার্থী তালিকায়৷ প্রার্থী হতে পারেন সোমেন ঘনিষ্ট সর্দার আমজাদ আলি, অধীর ঘনিষ্ট ওমপ্রকাশ মিশ্র ও রিজু ঘোষাল৷ জোট না হলে রায়গঞ্জে প্রার্থী হচ্ছেন দীপা দাশমুন্সি ও দার্জিলিংয়ে শঙ্কর মালাকার৷