স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: রবিবাসরীয় প্রচারে জমজমাট বাঁকুড়া। শাসক তৃণমূল থেকে শুরু বাম- বিজেপি সব পক্ষের প্রচারে জমজমাট বাঁকুড়ার উত্তর থেকে দক্ষিণ সর্বত্র। বিষ্ণুপুর (তফঃ) লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী শ্যামল সাঁতরা প্রচারে অভিনবত্ব আনতে এদিন সকাল সকাল সাইকেল নিয়ে বেরিয়ে পড়লেন।

কর্মী সমর্থকদের সঙ্গে নিজে সাইকেল চালিয়ে কোতুলপুর ব্লক এলাকার গোপীনাথপুরে প্রচার চালালেন। পরে বেলা বাড়ার সঙ্গে হুডখোলা গাড়িতে চেপে রোড শো এ অংশ নেন তিনি। এদিন রাত এগারোটা পর্যন্ত বিষ্ণুপুর লোকসভা এলাকার বিভিন্ন অংশে প্রচার চালাবেন বলে শ্যামল সাঁতরা জানান।

অন্যদিকে, বাঁকুড়া-১ ব্লক এলাকার দামোদরপুরে কর্মী সভায় অংশ নিলেন বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। প্রচার পর্বের মাঝেই একেবারে অন্য মুডে পাওয়া গেল ‘হেভিওয়েট’ এই তৃণমূল প্রার্থীকে। আদিবাসী কর্মী সমর্থকদের সঙ্গে ধামসা মাদল নিয়ে নাচও করলেন তিনি। সব মিলিয়ে যেন তিনি বুঝিয়ে দিলেন ‘আমি তোমাদেরই লোক’।

পরে সুব্রত মুখোপাধ্যায় সাংবাদিকদের বলেন, রোদের উত্তাপ যত বাড়বে প্রচারের তেজ তত বাড়বে। তবে কর্মী সভাগুলি সাধারণভাবে বিকেলের দিকে করা হবে বলে তিনি জানান।

প্রচারে পিছিয়ে নেই বিজেপিও। রবিবার সকাল সকাল জনসংযোগ বাড়াতে একপ্রস্থ প্রচার সেরে নিলেন বাঁকুড়া লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ডাঃ সুভাষ সরকার। এদিন তিনি বাঁকুড়া শহরের মূল বাজার চকবাজারে সবজি বিক্রেতা থেকে মাছ বিক্রেতা এবং সকালে প্রাত্যহিক বাজার করতে আসা সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলেন।

এছাড়া পদ্ম ফুল চিহ্নে ভোট দেওয়ার আবেদন রাখেন তিনি। পরে দক্ষিণ বাঁকুড়ার জঙ্গল মহলে প্রচারের উদ্দেশ্যে বেরিয়ে যান তিনি। বিজেপি প্রার্থী ডাঃ সুভাষ সরকার বলেন, গরিব খেটে খাওয়া মানুষের নিত্য দিনের সঙ্গী বিজেপি। তাই সকালে এই বাজারে প্রচার চালানোর কর্মসূচি নেওয়া হয়েছিল।

তিনি আরো বলেন, আমি নিজে প্রতিটি ছোট ব্যবসায়ীর সাথে বহু চর্চিত নোট বন্দী প্রসঙ্গে কথা বললাম। প্রত্যেক ব্যবসায়ীই নোট বন্দীতে লাভ হয়েছে বলে তাকে জানিয়েছেন বলে ডাঃ সুভাষ সরকার দাবী করেন। চকবাজারের ছোট ব্যবসায়ীদের বক্তব্য নোট বন্দী বিরোধীদের ‘মুখে ঝামা ঘষে দিয়েছে’ বলেও তিনি দাবি করেন।

জেলার দুই লোকসভা কেন্দ্রে জোরদার প্রচার চালাচ্ছেন বাঁকুড়া ও বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের সিপিএম প্রার্থী অমিয় পাত্র ও সুনীল খাঁ। প্রচারের প্রথম পর্বে ছোট কর্মী সভা, এলাকায় ঘুরে প্রার্থীরা প্রচার চালাচ্ছেন বলে জেলা সিপিএম সূত্রে জানানো হয়েছে।