নয়াদিল্লি : ধর্ষণে অভিযুক্ত বিজেপি বিধায়কের সঙ্গে দেখা করতে গেলেন সাক্ষী মহারাজ। দেখা করতে গেলেন জেলে। কুলদীপ সিং সেঙ্গার নামে উন্নাওয়ের ওই বিজেপি বিধায়কের সঙ্গে দেখা করতে যান উন্নাও কেন্দ্রের সাংসদ সাক্ষী মহারাজ। যা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে তুমুল জল্পনা। বুধবার অভিযুক্ত বিধায়কের সঙ্গে দেখা করতে সীতাপুর জেলে যান বিধায়ক। তবে সাংসদের দাবি, ভোটে জিতে বিধায়ককে ধন্যবাদ জানাতেই জেলে তার সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছেন তিনি।

গত বছরই এপ্রিল মাসে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার হন বিধায়ক কুলদীপ। ১৬ বছরের এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার করে সিবিআই। এবিষয়ে তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হলে সাংসদ জানিয়েছেন, “দীর্ঘ দিন ধরে বন্দি রয়েছেন তিনি(কুলদীপ সিং সেঙ্গার)। আমি তাঁকে দেখতে এসেছি। ভোটের পরে তাঁকে ধন্যবাদ জানাতে এসেছি।”

সূত্রে জানা গিয়েছে, লোকসভা নির্বাচনে উন্নাওয়ে প্রচারের সময়ও কুলদীপের বাড়িতে দেখা করতে গিয়েছিলেন মহারাজ। কথা বলে এসেছেন ওর পরিবারের সঙ্গে। পকসো আইনে মামলা রুজু হয় কুলদীপের বিরুদ্ধে। নাবালিকার বাবার মৃত্যুর সঙ্গে কুলদীপের দাদা জয়দীপ সিংয়ের নাম জড়িয়েছিল পরে। সেই সঙ্গে আরও ৫ জনের নাম ছিল ওই মামলায়।

সিবিআই জানিয়েছিল, বিধায়ক এবং তাঁর দাদাকে অপমান করার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছিল নিগৃহিতার বাবাকে। কিন্তু তাঁর স্বাস্থের অবনতি হওয়ায় তাঁকে হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। পরের দিন সকালে হাসপাতালেই মারা যান তিনি।