কলকাতা: কার মতামতের ভিত্তিতে লকডাউন তোলা হয়েছিল, রাজ্য সরকার এবং কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশ্যে ঠিক এমন প্রশ্নবাণ ছুড়ে দিয়েছে কলকাতা হাই কোর্ট। উত্তর তলব করেছে হাইকোর্ট।

শুক্রবার কলকাতা হাই কোর্টের তরফে জুন মাসের ১১ তারিখের মধ্যে হলফনামা দিয়ে এই প্রশ্নের উত্তর চাওয়া হয়েছে। জানা গিয়েছে, হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছিলেন আইনজীবী অনিন্দ্য সুন্দর দাস। আজ প্রধান বিচারপতি থোট্টাথিল ভাস্করণ নায়ারের ডিভিশন বেঞ্চে সেই মামলার শুনানি ছিল।

এদিন মামলার অনলাইন শুনানির সময় মামলাকারী সংবাদপত্রে প্রকাশিত বিভিন্ন প্রতিবেদন তুলে ধরেন। বিভিন্ন জায়গায় উঠে আসে শ্রমিকদের বিশৃঙ্খলা আবার কোথাও জমায়েতের ছবি উঠে আসে এদিনের শুনানিতে।

এদিকে জুন মাসের ৮ তারিখ থেকে ধর্মস্থান খোলার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। ধর্মস্থান খোলার প্রথম ও প্রধান শর্ত রাখা হয়েছে সামাজিক দূরত্ব পালন। এই বিষয়ের দিকে কড়া নজর রাখতে হবে কর্তৃপক্ষকে বলে স্পষ্ট জানানো হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নির্দেশ কনটেনমেন্ট জোনে কোনও ধর্মস্থান খোলা যাবে না।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফেও জারি করা হয়েছে একাধিক নিয়মাবলী। জানানো হয়েছে ৬৫ বছরের ওপরের ব্যক্তি, গর্ভবতী, ১০ বছরের নীচে শিশুদের বাড়িতে থাকতে হবে। কোনওভাবেই ধর্মস্থানে প্রবেশ করতে পারবে না।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব