কায়রো:  ভয়াবহ দুর্ঘটনা মিশরে। দুটি ট্রেনের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ। যদিও এখনও পর্যন্ত ভয়াবহ এই ট্রেন দুর্ঘটনায় কারোর মৃত্যু হয়নি। তবে এই ঘটনায় আহত ৩৮জনেরও বেশি মানুষ। ইতিমধ্যে উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছে। কীভাবে এই ঘটনা ঘটল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সিগনালিংয়ের কারণেই এই দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু হয়েছে। খতিয়ে দেখা হচ্ছে দুর্ঘটনার কারণ। দুটির ট্রেনের চালককে শুরু হয়েছে জিজ্ঞাসাবাদ।

পড়ুন আরও- নয়া মানচিত্রে পাকিস্তান হল ‘পাকিস্তানম’ আর চিনের নাম ‘চিন গণরাজ্যম’

সংবাদসংস্থা রয়টার্স জানাচ্ছে, আলেক্সান্দ্রিয়া ও মার্সা মাতরুর মধ্যকার রেললাইনের মাঝে ভয়াবহ এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। জানা গিয়েছে, আহতদের আঘাত মারাত্মক ছিল না, তাদের সবাইকে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে সংবাদসংস্থাকে জানিয়েছেন সে দেশের আধিকারিকরা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। এই ঘটনার পরেই সে দেশের রেলের দিকে গুরুত্ব দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত বছর মিশরের রাজধানী কায়রোর রামসেস স্টেশনে একটি ট্রেন দুর্ঘটনার পর আগুন ধরে যায়। ভয়াবহ এই দুর্ঘটনার পর লাগা আগুন প্লাটফর্মসহ অন্যত্র ছড়িয়ে পড়ে। ভয়াবহ এই ঘটনায় অন্তত ২০ জনেরও বেশি সাধারণ মানুষের মৃত্যু হয়। ঘটনায় গুরুতর আহত হন আরও কয়েকশ মানুষ। দুর্বল রক্ষণাবেক্ষণের কারণে মিশরে প্রায়ই ট্রেন দুর্ঘটনার খবর পাওয়া যায়, ২০১৯ সালেই দেশটিতে ছোটবড় মিলিয়ে এক হাজার ৭৯৩টি ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটেছিল বলে দেশের এক পরিসংখ্যানে দেখা গিয়েছে।