মেলবোর্ন: করোনা আবহে ক্রীড়াজগতে প্রথা ভেঙেছে অনেককিছুই। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর প্রথমবারের জন্য বাতিল হয়েছে উইম্বলডন। একবছর পিছিয়ে গিয়েছে টোকিও অলিম্পিক। পিছিয়েছে ইউরো। সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে স্থগিত হয়েছে টি২০ বিশ্বকাপ। এবার করোনা আবহেই অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে প্রথা ভাঙার পথে বক্সিং-ডে টেস্ট ম্যাচ।

সাধারণত ক্যাঙ্গারুর দেশে বক্সিং-ডে টেস্ট ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয় মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে। এবারও ভারতের অস্ট্রেলিয়ার সফরে টেস্ট ম্যাচের যে সূচি নির্ধারণ করা হয়েছিল, তাতে বক্সিং-ডে টেস্ট ম্যাচের ভেন্যু হিসেবে প্রথা মেনে মেলবোর্নকেই রাখা হয়েছিল। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া প্রদেশে কোভিডের সংক্রমণ বাড়াবাড়ি আকার ধারণ করেছে। তাই আগামী ২৬-৩০ বক্সিং-ডে টেস্ট ম্যাচের ভেন্যু পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। সিডনি মর্নিং হেরাল্ডে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী মেলবোর্নের পরিবর্তে বক্সিং-ডে টেস্ট ম্যাচ আয়োজনের দৌড়ে সবার প্রথমে রয়েছে অ্যাডিলেড। সব ঠিকঠাক থাকলে অ্যাডিলেডেই অনুষ্ঠিত হবে বক্সিং-ডে টেস্ট ম্যাচ।

এব্যাপারে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া চেয়ারম্যান আর্ল এডিংস জাতীয় ক্রিকেট ক্যাবিনেটের সঙ্গে আগামী সপ্তাহে এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসতে চলেছেন। সিরিজ যাতে মসৃণভাবে এগোয় সেজন্য নানা পরিকল্পনা গৃহীত হতে পারে ওই সভায়। উল্লেখ্য, লকডাউনের জেরে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ৩০০ মিলিয়ন অস্ট্রেলিয়ান ডলার ক্ষতির সম্মুখীন। ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ আয়োজন করে সেই ক্ষতির হাত থেকে কিছুটা রক্ষা পাবে তাঁরা। স্বাভাবিকভাবেই সিরিজ আয়োজন ঘিরে কোনওরকম খামতি রাখতে চায় না ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

ভিক্টোরিয়া প্রদেশের অবস্থা ভালো নয় বলে দেশের প্রথম সারির সংবাদমাধ্যমটিকে জানিয়েছেন ক্রিকেট বোর্ডের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক। স্বাভাবিকভাবেই পরিকল্পনামাফিক মেলবোর্নে বক্সিং-ডে টেস্ট ম্যাচ আয়োজন সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ায় বিভিন্ন প্রদেশেও জারি হয়েছে সীমান্ত পারাপারে নিষেধাজ্ঞা। ভিক্টোরিয়া প্রদেশে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা ১৩ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। মৃতের সংখ্যা ২০০ ছুঁই-ছুঁই। আক্রান্তের নিরিখে শীর্ষে ভিক্টোরিয়া প্রদেশই। দ্বিতীয়স্থানে রয়েছে নিউ সাউথ ওয়েলস। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৪ হাজার।

ভারতের অস্ট্রেলিয়া সফরের সূচী ঘোষণার সময়েই ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া জানিয়েছিল। পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে এই সূচি বা ভেন্যুর পরিবর্তন হতে পারে। উল্লেখ্য, ব্রিসবেনের গাব্বায় ৩ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে বহু প্রতীক্ষিত টেস্ট সিরিজ। ১১-১৫ ডিসেম্বর অ্যাডিলেডে হবে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট (দিন/রাতের)। ২৬-৩০ বক্সিং-ডে টেস্ট নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের অপেক্ষা। আর ৩-৭ জানুয়ারী সিডনিতে নিউ-ইয়ার টেস্ট খেলবে দু’দল।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।