ঢাকা:  বাইকাররা ব্যক্তিগত কাজে নিজের গন্তব্যে যাওয়ার পাশাপাশি একই গন্তব্যের কোনও যাত্রীকে পৌঁছে দিলেন অর্থ উপার্জন! এমনই একটি মোবাইল অ্যাপ নিয়ে এসেছে ডাটাভক্সসেল লিমিটেড। ‘স্যাম’ তথা ‌‘শেয়ার এ মোটরসাইকেল’ নামের এই মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে নতুন ধরনের এই ব্যবসা শুরু করে দিয়েছে এই তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানটি।
সম্প্রতি ঢাকার গুলশানের স্পেকট্রা কনভেনশন সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে স্যাম মোবাইল অ্যাপটি কিভাবে কাজ করবে তার বিস্তারিত তুলে ধরা হয়।

পড়ুন আরও-

মাত্র ১ লিটার জ্বালানিতে ১৪৮ কিলোমিটার চলবে এই বাইকটি

সম্মেলনে বলা হয়, এই মোবাইল অ্যাপটির মাধ্যমে ঢাকা শহরে থাকা চার লাখেরও বেশি ব্যক্তিগত মোটরসাইকেলের মাধ্যমে প্রতিদিন চার লাখের বেশি যাত্রী পরিবহন করা সম্ভব। নির্মাতাদের বক্তব্য, বাইকার ও রাইডার স্যাম অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে একই গন্তব্যে পৌঁছাতে পারবে। যাত্রীরা তাদের টাকাও পরিশোধ করতে পারবেন এই অ্যাপের মাধ্যমে। তাই সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি অত্যন্ত নিরাপদ।

যেভাবে কাজ করে ‘স্যাম’

যাত্রী এবং রাইডারকে তার অ্যানড্রয়েড মোবাইল ফোনে ‘রাইডার অ্যাপ’টি ইনস্টল করতে হবে। ঠিক একইভাবে মোটরসাইকেল মালিক তথা বাইকার্সরা ‘স্যাম বাইকার’ অ্যাপ তাদের অ্যানড্রয়েড ডিভাইসে ইনস্টল করবেন। বাইকার ও রাইডারের মোবাইল ফোনে অ্যাপটি একবার ইনস্টল হয়ে গেলে এতে লগ ইন করে রাইডার তার যাত্রার জন্য একটি অনুরোধ পাঠাতে পারবে, যা রাইডারের দুই কিলোমিটার এলাকার মধ্যে থাকা সব বাইকারের কাছে পৌঁছে যাবে। একই গন্তব্য অভিমুখী বাইকার রাইডারের অনুরোধটি গ্রহণ করতে পারবেন এবং এগিয়ে গিয়ে রাইডারকে তুলে নিয়ে যাত্রা শুরু করবেন।
অ্যাপের একটি মাইলেজ মিটার দূরত্ব নির্ধারণ করবে এবং সে অনুযায়ী বিল হবে। বিল স্বয়ংক্রিয়ভাবে স্যাম অ্যাপসের ই-ওয়ালেটের মাধ্যমে পরিশোধিত হবে। নগদ টাকা লেনদেনের প্রয়োজন নেই। একটি রাইডের অনুরোধ করা অথবা একটি রাইড অনুমোদন করার আগে রাইডার ও বাইকার একে অন্যের সম্পর্কে জেনে নেওয়ার সুযোগ পাবেন। তবে নিরাপত্তার কারণে রাইডার ও বাইকারের সব তথ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করবে  ডাটাভক্সসেল। রাইডের অনুরোধ করা এবং অনুরোধ গ্রহণ করার সময় বাইকার ও রাইডার একে অন্যের মধ্যে কিছু তথ্য আদান-প্রদান করতে পারবে। এভাবে বাইকার ও রাইডার দুজনেই যাত্রাসঙ্গী সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পারবেন।

ডাটাভক্সসেলের তরফে জানানো হয়েছে,  “এই প্রকল্পটি সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে বড় ভূমিকা রাখবে। ” ভবিষ্যতে ডাটাভক্সসেল লিমিটেড এই স্যাম সার্ভিসের মাধ্যমে পার্সেল এবং ওষুধ সরবরাহ করবে বলেও সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে।