স্টাফ রিপোর্টার, ইংরেজবাজার: তোলা আদায়কে কেন্দ্র করে হুলুস্থুলু বেঁধে গেল মালদহের রতুয়াতে৷ অভিযোগ একদল যুবক বাস থামিয়ে চালকের কাছে মোটা টাকা তোলা বাবদ চায়৷ তা দিতে অস্বীকার করায় দু’পক্ষের মধ্যে ব্যাপক হাতাহাতি হয়৷ উত্তেজিত জনতা বাসে ভাঙচুর চালায়৷ তবে ওই যুবকদের পাল্টা দাবি, বেপরোয়া বাস চালানোর প্রতিবাদ করায় বাস চালক ও খালাসী তাদের উপর চড়াও হয়৷ স্থানীয় রতুয়া থানায় দু’পক্ষই অভিযোগ জানিয়েছে৷

আরও পড়ুন: ইছাপুরে সিসিটিভি ভেঙে সোনার দোকানে লক্ষাধিক টাকার গহনা চুরি

পুলিশকে অভিযোগে ওই যুবকেরা জানিয়েছে, মালদহ-রতুয়া রাজ্য সড়কের উপর একটি চায়ের দোকানে বসে বন্ধুদের সঙ্গে চা খাচ্ছিল আরিফ৷ এমন সময় রতুয়াগামী একটি বেসরকারি বাস বেপরোয়া গতিতে আসে৷ বাসের ধাক্কায় মাটিতে পড়ে যায় আরিফ৷

এই ঘটনার প্রতিবাদ করায় অভিযোগ, বাস চালক ও কন্ডাক্টর তাকে যথেচ্ছ কিল ঘুষি মারে৷ তাদের মারের চোটে মুখে, পিঠে, কাঁধে গুরুতর আঘাত পায় সে৷ ওই অবস্থায় তাকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷ সেখানেই তার চিকিৎসা চলছে৷

আরও পড়ুন: জগৎবল্লভপুরে ব্রিজ ভেঙে বিপত্তি

অপরদিকে বাস ওর্নাস ইউনিয়নের সভাপতি কাজল রায় জানান, ওই যুবকেরা বাস দাঁড় করিয়ে তোলা চাইছিল৷ তা দিতে না চাওয়ায় বাস চালক ও কন্ডাক্টরকে মারধোর করে ওরা৷ ওই যুবকেরা মদপ্য অবস্থায় ছিল বলে অভিযোগ৷ যদিও ঘটনার পর থেকেই পলাতক বাস চালক, কন্ডাক্টর৷ রতুয়া থানার পুলিশ তাদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে৷