আহমেদাবাদ: ভয়াবহ দুর্ঘটনা গুজরাতে। ৫০ জন যাত্রীবাহী বাস বনসকথা জেলার আম্বাজি শহরের একটি খাদে উল্টে যায়। এই ঘটনায় কমপক্ষে ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে, আহত বহু। আহতদের ঐ এলাকার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার একটি যাত্রীবাহি লাক্সারি বাস হঠাতই ত্রিশূল ঘাটের কাছে উল্টে যায়। বাসযাত্রীদের পঞ্চাশ জনের মধ্যে যে একুশ জনের মৃত্যু হয়েছে, তাঁদের মধ্যে ১৪ জন পুরুষ, তিনজন মহিলা এবং চারজন শিশু। আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থাই আশংকাজনক।

অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা নিয়ে ১০৮ জনের একটি দল এবং বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের সাহায্যে পুলিশ আটকদের উদ্ধারকার্য চালাচ্ছে। ঐ জেলার সাব-ডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেট ঘটনাস্থলে উপস্থিত রয়েছেন এবং কতজন প্রাণ হারিয়েছেন তা জানিয়েছেন। গুজরাতের আনন্দ জেলার খাঁদোল, পূণ্ডাণ, আসোদার, কাভাইপুরা ওণচলেড় মোট ৬০ জন নবরাত্রি ঊপলক্ষে তাঁদের গ্রাম আম্বাজীতে গিয়েছিলেন। অতিবৃষ্টিতে সেখান থেকে ফেরার পথেই বাসটি একটি খাঁদের কাছে ঊল্টে যায়।

গুজরাতের এই ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শোকপ্রকাশ করেছেন। পাশাপাশী আহতদের দ্রুত আরোগ্যের বার্তা দিয়েছেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এই ঘতাণয় দুঃখপ্রকাশ করেছেন। চলতি বছরের জুন মাসেই এই একই জায়গায় একটি জিপ ঊল্টে গিয়েছিল।