স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: প্রথমে ভাড়া বাড়ানোয় সায় দিয়েছিলেন কিন্তু শনিবার রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী জানালেন বেসরকারি বাস বাড়তি ভাড়া নিতে পারবে না। সেইসঙ্গে তিনি জানান, সোমবার থেকে আধঘন্টা অন্তর সরকারি বাস মিলবে রাস্তায়। সকাল সাতটা থেকে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত রাস্তায় মিলবে বাস।

এদিন পরিবহণমন্ত্রী বলেন, “রাজ্য সরকার ভাড়া বাড়ানোর পক্ষে নয়। কারণ লকডাউনের জেরে মানুষ এমনিতেই পর্যুদস্ত।বেসরকারি বাস মালিকরা ভাড়া না বাড়ালে অন্য সবকিছুতে তাদের সাহায্য করবে সরকার।”

তিনি এও বলেন, “সোমবার থেকে সরকারি বাসের সংখ্যা বাড়বে। সোমবার থেকে আধঘণ্টা অন্তর সরকারি বাস। পরীক্ষামূলকভাবে ১৫টি রুটে চলছে সরকারি বাস। কেউ সহযোগিতা না করলেও সমস্যা হবে না।”

সেইসঙ্গে পরিবহণ মন্ত্রী জানান, ট্যাক্সির ক্ষেত্রে দুজন যাত্রীর অনুমতি থাকলেও মিটারে যা উঠবে সেই ভাড়া দিতে হবে। এক্ষেত্রে কোনও সমস্যা নেই। তিনি বলেছেন, কনটেনমেন্ট জোন বাদে নামবে ১ হাজার ওলা-উবের।

গত সপ্তাহে বাস-মিনিবাস সংগঠনগুলির সঙ্গে বৈঠক করেন রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। ভাড়া কী হবে, তা বাস মালিকদের উপরেই ছেড়ে দেন তিনি। বৈঠকের পরিবহণমন্ত্রী বলেছিলেন, “২০ জন যাত্রী নিয়ে বাস চলবে। মালিকদের যাতে খরচা ওঠে, সে বিষয়টাও দেখতে হবে। যাঁদের বেরতেই হচ্ছে, তাঁদের এটুকু সহযোগিতা তো করতে হবে।”

তারপরই বেসরকারি বাস মালিক সংগঠনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, সীমিত সংখ্যক যাত্রী নিয়ে চালালে ভাড়া না হলে বাস চালানো সম্ভব নয়। সেক্ষেত্রে ন্যূনতম ভাড়া ২০ টাকা রাখার কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু এই সময় বহু মানুষেরই রোজগার বন্ধ। বাস ভাড়া বাড়লে গরিব মানুষদের সমস্যা হবে। তাই অনেকেই চাইছিলেন সরকার এব্যাপারে কিছু একটা পদক্ষেপ করুক। শনিবার পরিবহণ মন্ত্রী জানালেন বেসরকারি বাস ভাড়া বাড়াতে পারবে না। যদিও রাজ্য সরকারের সেই নির্দেশ বাস মালিকরা আদৌ শুনবেন কিনা সেটাই এখন বড় প্রশ্ন।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব