বার্মিংহ্যাম: টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের(WTC Final) কথা ভেবে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে কিউয়ি একাদশে আমুল পরিবর্তন। যদিও ধারণাটা আগেই দিয়ে রেখেছিলেন কোচ গ্যারি স্টিড(Gary Stead)। পাশাপাশি কোহলিদের(Virat Kohli) বিরুদ্ধে ফাইনালের কথা ভেবে কনুইয়ে চোট পাওয়া কেন উইলিউয়ামসনও(Kane Willaimson) যে দ্বিতীয় টেস্টে খেলছেন না, সেটা বুধবারই পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল।

লর্ডসে বল হাতে আগুন ঝরানো টিম সাউদি(Tim Southee) এবং কাইল জেমিসনকে(Kyle Jamieson) বাইরে রেখেই বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় টেস্টের দল সাজায় নিউজিল্যান্ড(New Zeland)। এজবাস্টন(Edgbaston) টেস্টে বিশ্রামে পাঠানো হয়েছে কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমকেও(Colin De Grandhomme)। তবে একাদশে প্রত্যাবর্তন করলেন ট্রেন্ট বোল্ট(Trent Boult)।

আর সেই বোল্ট নেতৃত্বাধীন কিউয়ি বোলিং বিভাগের আক্রমণের সামনে প্রথম ইনিংসে ব্যাট হাতে কোণঠাসা ইংল্যান্ড। তবুও বিপর্যয়ের মাঝে ভরসা জোগালেন ওপেনার ররি বার্নস(Rory Burns) এবং মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান ড্যান লরেন্স(Dan Lawrence)। প্রথম টেস্টে শতরানের পর দ্বিতীয় টেস্টেও মূল্যবান অর্ধশতরান এল বার্নসের ব্যাট থেকে। প্রথমদিনের শেষে অপরাজিত অর্ধশতরানে মাঠ ছাড়লেন লরেন্স। সবমিলিয়ে এজবাস্টন টেস্টের প্রথমদিন ৭ উইকেটে ২৫৮ রান তুলে শেষ করল ইংল্যান্ড।

এজবাস্টনে বৃহস্পতিবার টস ভাগ্য সঙ্গ দেয়নি কিউয়িদের অস্থায়ী অধিনায়ক টম ল্যাথামকে(Tom Latham)। টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ইংরেজ অধিনায়ক জো রুট(Joe Root)। শুরুটা ভালোই হয়েছিল হোম টিমের। ওপেনিং জুটিতে ৭২ রান তোলেন ররি বার্নস এবং ডম সিবলে(Dom Sibley)। এরপরেই দ্রুত তিন উইকেট খুঁইয়ে চাপে পড়ে যায় ‘থ্রি-লায়ন্স'(Three-Lions)। ৩৫ রানে আউট হন সিবলে। শূন্য রানে ফেরেন ক্রলি আর অধিনায়ক রুটের সংগ্রহে মাত্র ৪। চতুর্থ উইকেটে ওলি পোপ(Ollie Pope) হাল ধরার চেষ্টা করলেও দীর্ঘস্থায়ী হয়নি তাঁর ইনিংস। পোপ ফেরেন ১৯ রানে। ইতিমধ্যেই অর্ধশতরান পূর্ণ করেন বার্নস।

চতুর্থ উইকেটে যোগ হয় ৪২ রান। এরপর পঞ্চম উইকেটেও বার্নসের সঙ্গে জুটিতে ৪২ রান যোগ করেন নয়া ব্যাটসম্যান ড্যান লরেন্স। কিন্তু ৮১ রানে বোল্টের প্রথম শিকার হন বার্নস। শুন্য রানে ফেরেন জেমস ব্রেসি। দিনের বাকি সময়টা দুই টেল-এন্ডার ওলি স্টোন(Ollie Stone) এবং মার্ক উডকে(Mark Wood) নিয়ে লড়াই করেন ড্যান লরেন্স। সপ্তম উইকেটে ৪৭ রান যোগ করেন লরেন্স-স্টোন জুটি। যদিও ২০ রানে স্পিনার আজাজের দ্বিতীয় শিকার হন স্টোন। এরপর উডকে সঙ্গে নিয়ে অর্ধশতরান পূর্ণ করেন লরেন্স। দিনের শেষে ১০০ বল খেলে ৬৭ রানে অপরাজিত তিনি।

অন্যদিকে ৫৮ বল খেলে ১৬ রান অপরাজিত উড। অষ্টম উইকেটে অবিভক্ত ৩৬ রানের সৌজন্যে দিনের শেষে ইংল্যান্ড ৭ উইকেট হারিয়ে ২৫৮ রান তুলেছে। নিউজিল্যান্ড বোলারদের মধ্যে ২টি করে উইকেট নিয়েছেন ট্রেন্ট বোল্ট, ম্যাট হেনরি(Matt Henry) এবং আজাজ প্যাটেল(Ajaz Patel)। একটি উইকেট নীল ওয়্যাগনারের(Neil Wagner)।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.