বর্ধমান: সংস্কারের কাজের জন্য বৃহস্পতিবার থকে বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে পূর্ব বর্ধমানের ইডেন সেতু। বর্ধমান-আরামবাগ রুটের কৃষকসেতু ওঠার আগে ডিভিসি সেচ ক্যানেলের ওপর রয়েছে এই ইডেন ক্যানাল সেতু।

বেহাল এই সেতুটির সংস্কারের কাজ চলবে। বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হবে সেতু সংস্কারের কাজ। প্রথম দফায় টানা ৪ দিন এই ইডেন ক্যানাল সেতু বন্ধ রাখা হবে। সেতু সংস্কারের কাজ চলার পরে পর্যায়ক্রমে ধাপে ধাপে ওই সেতু দিয়ে হালকা ও ভারী গাড়ি চালানো হবে বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে। বুধবার সন্ধেয় সেতুর অবস্থা এবং বিকল্প রাস্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখতে যান বর্ধমান উত্তর মহকুমা শাসক পুষ্পেন সরকার-সহ পুলিশ ও প্রশাসনের আধিকারিকরা।

বৃহস্পতিবার এই ইডেন ক্যানাল সেতু মেরামতির জন্য বন্ধ করে দেওয়া হলেও পাশের পুরনো সেতু দিয়ে সমস্ত গাড়ি যাতায়াত করছে। ফলে সেতু বন্ধে যাত্রী হয়রানির সম্ভাবনা নেই বলেই জানিয়েছে প্রশাসন। বর্ধমান জেলা বাস অ্য়াসোসিয়েশনের সদস্য শরত কোনার জানিয়েছেন, ১৯৭৮ সালে ৮৩ মিটার দৈর্ঘ্যের ডিভিসি ক্য়ানালের উপর তৈরি হয় ইডেন ক্যানাল সেতু। দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় সেতুটির এখন বেহাল দশা। সবরকম গাড়ি যাতায়াত করে বলেই ক্রমেই সেতু নিয়ে আশঙ্কা বাড়ছিল। স্থানীয়দেরও অনেকে অবিলম্বে সেতুটি মেরামচের দাবি জানিয়েছিলেন। শেষমেশ সেতু সংস্কারে উদ্যোগী হয়েছে প্রশাসন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতিদিনই এই সেতুটির উপর চাপ বাড়ছিল। স্থানীয়দের একাংশ ইডেন ক্যানাল সেতু সংস্কারের পাশাপাশি এলাকায় যান চলাচল মসৃণ করতে আরও একটি সেতু তৈরির দাবি জানিয়েছেন। পূর্ব বর্ধমানের ইডেন ক্যানাল সেতুর মাধ্যমে পূর্ব বর্ধমান জেলার সঙ্গে বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, দুই মেদিনীপুর-সহ ওড়িশারও যোগাযোগ হয়। প্রতিনিয়তই ভারী গাড়ি যাতায়াত করে এই সেতুর উপর দিয়ে।

এদিকে, মেরামতির জন্য ইডেন ক্যানাল সেতু বন্ধ করে দিয়ে পাশের পুরনো সেতু দিয়ে যানবাহন চলাচল করানো হচ্ছে। প্রশাসন যাত্রী হয়রানির আশঙ্কা না করলেও এলাকাবাসীদের একটি বড় অংশ হয়রানির আশঙ্কা করছেন। ভারী গাড়িগুলিকে জামালপুরের হরেকৃষ্ণ কোঙার সেতু দিয়ে যাতায়াত করানো হচ্ছে। ইডেন ক্যানাল সেতুর পাশে থাকা পুরনো সেতু দিয়েও বাস ও ছোট গাড়ি যাতায়াত করছে।