নয়াদিল্লি: সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু তদন্তে আসছে একের পর এক নয়া মোড়। এবার সেই তদন্তে জড়িয়ে গেল ক্রিকেটও। না, তবে প্রত্যক্ষভাবে নয় বরং পরোক্ষভাবে। প্রয়াত বলিউড অভিনেতার মৃত্যু তদন্তে সেন্ট্রাল ব্যুরো ইনভেস্টিগেশন এবার ডেকে পাঠাল বান্টি সাজদেকে। যিনি একাধারে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির এজেন্ট আবার বিরাটের ডেপুটি রোহিত শর্মার শ্যালক। রোহিতের শ্যালককে জিজ্ঞাসাবাদের প্রক্রিয়াও চলছে বলে জানা গিয়েছে।

কিন্তু সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর সঙ্গে রোহিতের স্ত্রী রীতিকার তুতো ভাই বান্টি সাজদের ঠিক কী সম্পর্ক? কর্নেস্টো স্পোর্টস অ্যান্ড এন্টারটেইনমেন্ট প্রাইভেট লিমিটেডের কর্ণধার রোহিতের এই শ্যালক। জানা গিয়েছে, সুশান্তের মৃত্যুর কয়েকদিন মৃত্যু হওয়া অভিনেতার প্রাক্তন ম্যানেজার দিশা সালিয়ান নাকি কাজ করতেন বান্টির সংস্থার হয়ে। এবং এই সংস্থার হয়ে কাজের সময়েই সুশান্তের সংস্পর্শে এসেছিলেন দিশা।

২০০৮ প্রতিষ্ঠিত এই সংস্থাটি দেশের অন্যতম ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট এজেন্সি। যার সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছেন বিরাট কোহলির মতো ক্রিকেটার সহ একাধিক বলিউড অভিনেতা-অভিনেত্রীর নাম। দেশের একটি শীর্ষ সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী সেই সংস্থার সিইও’কে এবার ডেকে পাঠালো সিবিআই। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় সরকারের প্রাক্তন আমলা আরভিএস মানি জানিয়েছিলেন, সুশান্তের মৃত্যুর সঙ্গে রাজনীতির গভীর সংযোগ এবং ষড়যন্ত্র রয়েছে। এমনকি বলিউডের সঙ্গে দুবাই’য়ের যেহেতু ঘনিষ্ঠ যোগসূত্র রয়েছে তাই সুশান্তের মৃত্যুতে দুবাই আন্ডারওয়ার্ল্ডের জড়িত থাকার সম্ভাবনা উসকে দিয়েছিলেন মানি।

আর যেহেতু বান্টি সাজদের সংস্থার সঙ্গে বলিউডের একাধিক নামীদামী তারকা জড়িয়ে রয়েছেন তাই সিবিআই’য়ের কু-নজরে এবার কর্নেস্টো স্পোর্টস অ্যান্ড এন্টারটেইনমেন্ট প্রাইভেট লিমিটেড। ইতিমধ্যেই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তীকে সিবিআইয়ের ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়তে হয়েছে। মামলার অপর অভিযুক্ত রিয়ার ভাই শৌভিক চক্রবর্তীকেও একাধিকবার জেরা করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার বিশেষ দল। রিয়ার পরিবার সহ জেরার মুখে পড়েছেন সুশান্তের ফ্ল্যাটের বাসিন্দারাও।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।