মুম্বই: ফের শেয়ার বাজার ঘুরে দাঁড়াল৷ সপ্তাহের শুরুতেই বিএসই সেনসেক্স এবং এনএসই নিফটি দুই সূচকেই উঠতে দেখা গিয়েছে ৷ এর কারণ হল দুটি পর পর ত্রৈমাসিকে সংকোচনের পর আবার দেশের অর্থনীতির বৃদ্ধি হতে দেখা গিয়েছে ৷ ফলে লগ্নিকারীদের মধ্যে উত্ফুল্ল দেখা গিয়েছে৷ বিএসই সেনসেক্স এদিন বাজার বন্ধের আগে ৭৪৯.৮৫ পয়েন্টে বা ১.৫৩ শতাংশ বৃদ্ধি হয়ে অবস্থান করছে ৪৯,৮৪৯.৮৪ পয়েন্ট ৷  ষেখানে দিনের মধ্য এক সময়ে তা পৌছে গিয়েছিল ৫০,০০০ পয়েন্টের উপরে৷ অন্যদিকে নিফটি দিনের শেষে ২৩২.৪০ পয়েন্টে উঠে অবস্থান করছে ১৪,৭৬১ পয়েন্টে ৷ সেনসেক্সে থাকা ৩০টির মধ্যে ২৯টি শেয়ারের দাম বেড়েছে ৷ তাদের মধ্য সবচেয়ে বৃদ্ধি হয়েছে পাওয়ার গ্রিড, ওএনজিসি, আল্ট্রাটেক সিমেন্ট, এশিয়ান পেন্টস,কোটাক মহিন্দ্র এবং টাইটান যাদের বৃদ্ধি হয়েছে ৫.৯৪ শতাংশ পর্যন্ত৷

দেশের অর্থনীতি দুটি পর পর ত্রৈমাসিকে সংকোচনের পর অবশেষে ঘুরে দাঁড়িয়েছে ৷ অক্টোবর থেকে ডিসম্বর এই ত্রৈমাসিকে জিডিপি বৃদ্ধি হয়েছে ০.৪ শতাংশ গত বছরের এই সময়ের সাপেক্ষে ৷ শুক্রবার এনএসও এমন তথ্য প্রকাশ করেছে ৷ বিশ্লেষকরা মনে করছে , যা ইঙ্গিত দিচ্ছে ধীরে ধীরে ঘুরে দাড়ানোর৷

গত শুক্রবার শেয়ার বাজারে বড় পতন লক্ষ্য করা গিয়েছিল ৷ সেদিন ১৯৩৯.৩২ পয়েন্ট বা ৩.৮০ শতাংশ পতন হতে দেখা গিয়েছিল ৷ যা ছিল গত চার বছরে সর্বচেয়ে বড় পতন৷ অন্যদিকে নিফটি পড়েছিল ৫৬৮.২০ পয়েন্ট যা
গত বছরের ২৩ মার্চের পর সবচেয়ে বড় পতন ৷ শুক্রবার দিন বিদেশি প্রতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা ৮২৯৫.১৯ কোটি টাকা শেয়ার বেচে দিয়েছিল৷

এদিন এশিয়ার শেয়ার বাজার দিনের শেষে মোটের উপর উচুতেই ছিল৷ গত সপ্তাহে বন্ড বাজারে অস্থিরতা থাকলেও এবার কিছুটা স্থিতিশীল অবস্থায় দেখা গিয়েছে ৷ অপরিশোধিত তেলের দাম প্রতি ব্যারেলে ০.৮৮ শতাংশ কমে হয়েছে ৬৫.৩৯ ডলার৷ বিদেশি মুদ্রার ক্ষেত্রে টাকার দাম ৮ পয়সা কমে গিয়ে ডলারের বিনিময় মূল্য হয় ৭৩.৫৫ টাকা৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.