কলকাতা: বুলবুলের দাপট আজ সকাল থেকেই মুখ ভার কলকাতার আকাশের। বেলা বাড়তেই বৃষ্টি নামে শহরে। হাওয়া অফিসের তরফে জানানো হয়েছে শনিবার থেকেই ব্যাপক বৃষ্টি নামবে কলকাতায়। তবে এই মুহূর্তে সবচেয়ে বড় যে চিন্তা কলকাতা তথা সমগ্র রাজ্যবাসীর মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছে, তা হল কোন পথে যাবে বুলবুল ?

হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস, রবিবার ভোর রাতে সুন্দরবন, সাগরদ্বীপে আছড়ে পড়বে এই ঝড়। তখন তার গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় একশো কুড়ি থেকে একশো য়ত্রিশ কিলোমিটার। এর ফলে মূলত ক্ষতিগ্রস্ত হবে সুন্দরবন এলাকা। আয়লা আতঙ্ক এখনও স্পষ্ট মনে রেখেছে সুন্দরবনবাসী। তাই ঝড় মোকাবিলায় কোনও ফাঁক রাখা হচ্ছে না প্রশাসনের তরফেও। খোলা হয়েছে কন্ট্রোলরুম।

জানা গিয়েছে, দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার উপকূলবর্তী ব্লক এলাকায় প্রায় ৩০০ টি ফ্লাড সেন্টারকে তৈরি রাখা হয়েছে। এছাড়া , বন দফতর, পুলিশ কর্মীদের, সেচ দফতরকেও পরিস্থিতির উপর নজর রাখতে বলা হয়েছে। সুন্দরবন এলাকায় ফেরি পরিষেবা বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড়ের জেরে সমুদ্র উত্তাল হয়ে উঠবে বলে সতর্ক করে দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। দুই চব্বিশ পরগণা এবং সুন্দরবনে এক থেকে দুই মিটার পর্যন্ত জলস্ফীতির আশঙ্কা রয়েছে। পূর্ব মেদিনীপুরে ০.৫ থেকে ১ মিটার পর্যন্ত জলস্ফীতি ঘটতে পারে।