প্রতীতি ঘোষ, ব্যারাকপুর: বুলবুল ঝড়ের আতঙ্কে অঘোষিত বন্ধ পালিত হল ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চল জুড়ে । গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে প্রভাব পড়বে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের । আবহাওয়া দপ্তর থেকে আগেই সতর্ক করা হয়েছিল রাজ্যবাসীকে । আগাম সতর্কতা মূলক ব্যবস্থা হিসেবে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার সমস্ত প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শনিবার আগেই ছুটি ঘোষনা করে দেওয়া হয়েছিল । ফলে শনিবার দিনভর বন্ধ ছিল জেলার বিভিন্ন প্রাথমিক স্কুল গুলি ।

ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের বিভিন্ন কলকারখানাগুলি এদিন খোলা ছিল, তবে শ্রমিকদের উপস্থিতি অন্যান্য দিনের তুলনায় কম ছিল । অনেক শ্রমিকই বৃষ্টির কারনে কাজে যোগ দিতে আসেননি এদিন। রাস্তাঘাটে লোকজন জরুরী প্ৰয়োজন ছাড়া বেরোননি । অধিকাংশ দোকাপাট ছিল বন্ধ, বাজার ছিল বন্ধ । রাস্তাঘাটে গাড়ির সংখ্যা ও তুলনমূলকভাবে অনেক কম ছিল এদিন ।

শুক্রবার রাত থেকে আবিরাম বৃষ্টি শুরু হয়েছে গোটা উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তথা ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলে । জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে শনিবার বুলবুল ঝড়ের সতর্কতা জারি করে হুগলি জেলার সঙ্গে জল পথে যোগাযোগ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে । ব্যারাকপুর মহকুমা এলাকায় ২৫ টি ফেরিঘাটের ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয় এদিন । যার ফলে কিছুটা সমস্যার সম্মুখীন হন ফেরিঘাট ব্যবহারকারী নিত্যযাত্রীরা । তবে ফেরিঘাটে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখার নোটিশ জারি করা হয়েছে ।

এদিকে লাগাতার বৃষ্টির কারনে নিচু বেশ কিছু জায়গায় জল জমেছে । দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে পানিহাটি, খড়দহ, গোবরডাঙা প্রভৃতি এলাকার বাসিন্দাদের । তবে পৌর পরিষেবায় যাতে কোন ঘাটতি না থেকে সেই দিকে নজর দেওয়া হয়েছে পুরসভাগুলোর পক্ষ থেকে ।

শনিবার গভীর রাতে বুলবুল ঝড় সুন্দরবন সংলগ্ন এলাকার উপর দিয়ে প্রবাহিত হবে । তবে তার আঁচ পড়বে গঙ্গা তীরবর্তী বিভিন্ন এলাকায় । সেই কারনেই ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের বাসিন্দাদেরও সতর্ক করা হয়েছে । গঙ্গায় মাছ ধরতে যেতে নিষেধ করা হয়েছে মাঝিদের । বিভিন্ন পুরসভার জন প্রতিনিধিদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে । নৈহাটি পুরসভায় পুরসভার পক্ষ থেকে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে ।