নয়াদিল্লি: ভারতকে বিশ্বের অন্যতম সেরা বাজারে পরিণত করতে চায় মোদী সরকার৷ পাঁচ লক্ষ কোটি মার্কিন ডলারের অর্থ ব্যবস্থার দিকে এগোতে চায় ভারত৷ সেই লক্ষেই, দেশের বাজার অর্থনীতিকে বিশ্বের দরবারে শীর্ষে তুলতে ‘বিশ্ব বিনিয়োগ সম্মেলন’ আয়োজন করবে ভারত৷

সম্প্রতি বিশ্ব অর্থনৈতিক মঞ্চ বা ওয়ান্ড ইকোনমিক ফোরামের ভবিষ্যতবানী অনেক বিশ্বকর্তার টনক নড়িয়ে দিয়েছে৷ ফোরামের বক্তব্য, ভারতীয়দের ক্রয়ক্ষমতা ১.৫ লক্ষ কোটি মার্কিন ডলার৷ ২০৩০ -এর মধ্যেই তা হবে ৬ লক্ষ কোটি মার্কিন ডলার৷ ভারত বিশ্বের ষষ্ঠ বৃহত্তম অর্থনীতি৷ বার্ষিক জিডিপি-র বৃদ্ধি ৭.৫ শতাংশ৷ সাম্প্রতিক বিশ্বে বাজার অর্থনীতির দৌড়ে মাত্র দুটি দেশই অগিয়ে রয়েছে – আমেরিকা এবং চিন৷

বৃহস্পতিবার, সংসদে মোদী সরকারে দ্বিতীয় ইনিংসের প্রথম বাজেট পেশ করেছে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন৷ নির্মলার ঘোষণা, বার্ষিক বিশ্ব বিনিয়োগ সম্মেলনের আয়োজন করা হবে৷ জাতীয় বিনিয়োগ এবং পরিকাঠামো তহবিলকে এই কাজে ব্যবহার করা হবে৷ সারা বিশ্বের সেরা বিনিয়োগকারীদের সম্মেলন হতে চলেছে এটি৷ শিল্পপতি, করপোরেট কর্তা এবং বিনিয়োগকারিদের নিয়েই বিশ্ব সম্মেলন৷

বিশ্ব অর্থনৈতিক মঞ্চের রিপোর্টের মূল কথা, ভারতের অর্থনীতি ধরে রেখেছে মধ্যবিত্ত সমাজ৷ দিন দিন-ই ভারতীয় মধ্যবিত্তদের ক্রয়ক্ষমতা বাড়ছে৷ বিশ্বের সেরা কোম্পানিগুলির নজর এখন ভারতে৷ এমন কোনও কোম্পানি সত্যই খুজে পাওয়া কঠিন, যারা ভারতে নিজের বানিজ্য দফতর খোলেনি৷ ভারতের মাটিকে বানিজ্য করতে রেষারেষিতে ব্যস্ত আমেরিকা এবং চিন৷

ভারতের বিভিন্ন রাজ্যেই আলাদা করে রয়েছে শিল্পসম্মেলনের ব্যবস্থা রয়েছে৷ কিন্তু বিশ্ব বিনিয়োগ সম্মেলনকে সারা বিশ্বের অন্যতম সেরা সম্মেলন করতে চান নরেন্দ্র মোদী৷ সেক্ষেত্রে শুধু শিল্পকর্তারাই নয়, বরং রাষ্ট্রনায়করাও হতে পারেন সম্মেলনের মূল আকর্ষণ৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ