নয়াদিল্লি: দৃষ্টিহীনদের সুবিধার্থে বাজারে আসছে নতুন কয়েন৷ কেন্দ্রীয় বাজেটে ঘোষণা করলেন নির্মলা সীতারমণ৷ জানানো হয়েছে বাজারে নিয়ে আসা হচ্ছে ১টাকা, ২টাকা, ৫টাকা, ১০ টাকা ও ২০ টাকার নতুন কয়েন৷ যার ডিজাইন হবে দৃষ্টিহীনদের সুবিধা অনুযায়ী৷ খুব তাড়াতাড়ি এই নতুন কয়েন বাজারে আসবে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী৷

লোকসভায় বাজেট পেশ করার সময় সীতারমণ জানান, ১,২,৫ ও ১০ টাকার নতুন কয়েন ইতিমধ্যেই বাজারে এসেছে৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হাত ধরে ২০১৯ সালের ৭ই মার্চ তা প্রকাশিত হয়েছে৷ বাজারেও খুব দ্রুত তা পাওয়া যাবে৷

বেশ কয়েকজন দৃষ্টিহীন পড়ুয়ার সামনে একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মার্চ মাসের ৭ তারিখ এই নতুন কয়েনগুলির উদ্বোধন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী৷ এদিকে নতুন প্রকাশিত হওয়া এই কয়েনগুলি বাজারে চলছে না বলে বিভ্রান্তি তৈরি হয়৷ সমস্যা কাটাতে ফের উদ্যোগী হয় রিজার্ভ ব্যাংক। দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তরফে সাধারণ মানুষকে এই বিষয়ে অবগত করে প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

আরও পড়ুন : BUDGET 2019: ১০ বছরের জন্য ১০টি লক্ষ্য স্থির করা হল মোদী সরকারের বাজেটে

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক সাফ জানায়, ছোট বড় সবধরণের কয়েন চলবে। কোনটাই বাতিল করা হয়নি। শুধু তাই নয়, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তরফে আরও জানানো হয়, দেশের অর্থনীতি, সমাজ এবং সংস্কৃতির উপর নির্ভর করে নানা আকারের কয়েন বা খুচরো পয়সা সম্প্রতি এনেছে রিজার্ভ ব্যাংক। আকারে, নকশায় এবং ভঙ্গিমায় সেগুলি আগের কয়েনগুলির তুলনায় আলাদা। ১, ২, ৫ এবং ১০ টাকার কয়েনগুলিতে অভিনবত্ব আছে।

এদিন বাজেটের প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী৷ তিনি বলেন, এবারের বাজেটে সাধারণ মধ্যবিত্তের কথা ভেবেছে সরকার৷ তাই আজ দেশ বিশ্বাস করে সরকার তাদের পাশে আছে৷ দেশের উন্নয়নের দিশা ও গতি সঠিক রয়েছে৷

প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন ২১ শতকের নতুন ভারত তৈরি করবে এবারের বাজেট৷ সাধারণ মানুষের ও নতুন প্রজন্মের লক্ষ্যপূরণ করার বাজেট তৈরি করা হয়েছে৷ নতুন ভারত নির্মাণের পথ প্রশস্ত করবে এবারের বাজেট৷

তিনি বলেন দেশের মান বাড়িয়েছে এই বাজেট৷ বিগত পাঁচ বছরে পিছিয়ে পড়ার শ্রেণীর ক্ষমতায়ন ঘটিয়েছে দেশের কেন্দ্র সরকার৷ সেই ক্ষমতায়নকেই পুঁজি করে এবার সামনে এগোবে নতুন ভারত৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ